Press "Enter" to skip to content

মোদী সরকারের উপর এলো গর্ব করার মতো UN রিপোর্ট!এই ভয়ঙ্কর জঙ্গি সংগঠন ভারতে..

ভারতে আল কায়দা হামলা নিয়ে ইউএন ভারত ও মধ্যেএশিয়ার দেশগুলিতে সর্তর্কতা জারি করেছে। আসলে যেহেতু জঙ্গিদের সবথেকে বড় শত্রু নরেন্দ্র মোদী আরো একবার ২০১৯ এ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হবেন। তাই অন্তরাষ্ট্রীয় জঙ্গি সংগঠন ভারতে বড়ো হামলা করার সুযোগ খুঁজছে। আসলে ভারত এই সময় স্বাধীনতা দিবস ও অন্যান্য বোরো কার্যক্রমের মধ্যে দিয়ে পেরোচ্ছে। রিপোর্ট অনুযায়ী জঙ্গি সংগঠনগুলি ভারতে আক্রমণ করার সুযোগ থাকলেও ভারতের কড়া নিরাপত্তার জন্য তাদের চেষ্টা বিফলে যাচ্ছে। মোদী সরকার আসার পর থেকে সুরক্ষা ব্যাবস্থা এত কড়া হয়েছে যে আতঙ্কিদের বাধ্যতামূলক হয়েপড়েছে।

জাতি সঙ্ঘ জানিয়েছে আল কায়দা ও আইএসআইএস ভারত সহ মধ্যে এশিয়ার দেশগুলির জন্য খুব বিপদজনক হয়ে পড়েছে। রিপোর্টে বলা হয়েছে আতঙ্কি সংগঠন আল কায়দা ভারতে নিজেদের শক্তি বৃদ্ধি ও হামলা করার চেষ্টা করছে। আর এতে আল কায়দার সাহায্য করছে আল কায়দা ইন্ডিয়া সাব কন্টিনেন্ট।যদিও ভারতে সুরক্ষা ব্যাবস্থা ফেল হওয়ার জন্য তাদের সমস্থ বড়ো প্রয়াস একের পর এক ব্যার্থ হয়ে চলেছে।

রিপোর্টে ইসলামিক স্টেট অফ ইরাক ও লেভ্যান্ট এর উল্লেখ রয়েছে। আইএসএস নামক জঙ্গি সংগঠন ভারত দেশের জন্য খুব সমস্যা তৈরি করতে পারে বলে রিপোর্টে বলা হয়েছে। আপনাদের জানিয়ে দি, এননিটিক্যাল সাপোর্ট ও সৈনিকশান মনিটরিং টিম আলকায়েদা, ইসলামিক স্টেট ও বাকি জঙ্গি সংগঠনের তথ্য ৬ মাসে একবার জাতিসংঘ অর্থাৎ ইউএন এর কাছে দেয়। এই রিপোর্টেই বলা হয়েছে যে জঙ্গি সংগঠনগুলি ভারতে আক্রমণের সুযোগ খুঁজছিল। কিন্তু সুরক্ষা ব্যাবস্থা খুব কড়া রাখার জন্য আতঙ্কিরা তাদের গুহা থেকে বের হতে পারছে না।

রিপোর্ট অনুযায়ী আলকায়দা দুর্বল হলেও দক্ষিণ এশিয়ায় জঙ্গিরা তাদের ঘাঁটি শক্ত করে রেখেছে এবং ভারতে আক্রমণ করার জন্য স্থানীয় সমর্থন খুঁজে বেড়াচ্ছে। জঙ্গিদের প্রমুখ সদস্য আলমান আল জাহারি ও ওসামা বিন লাদেনের ছেলে হামজা বিন লাদেন আফগানিস্থান ও পাকিস্থানের বর্ডারে লুকিয়ে রয়েছে। জঙ্গি সংগঠনের মোট ৩৫০০ থেকে ৪০০০ সদস্য পাকিস্থান ও আফগানিস্তানে লুকিয়ে রয়েছে। প্রসঙ্গত, বর্তমানে ভারতের এটা বড়ো উপলদ্ধি যে মোদী সরকারের কড়া সুরক্ষার জন্য মোদিযুগে মুম্বাই হামলার মতো কোনো জঙ্গি হামলা হয়নি। হিজবুল মুজাইদ্দিনের মতো সংগঠনগুলো মোদী সরকারকে যে ভয় পেতে শুরু করেছে এটা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।