Press "Enter" to skip to content

মমতাকে মুসলিম সাম্প্রদায়িক বলে নরেন্দ্র মোদীর প্রশংসা করলেন এই বীর স্বাধীনতা সংগ্রামী।

১০ বছর বয়স থেকে স্বাধীনতা সংগ্রামে নেমে ছিলেন পুনেন্দুপ্রসাদ ভট্টাচার্য। এমনকি স্বাধীনতা সংগ্রাম চলাকালীন ভারত মাতার বীরপুত্র সুভাষ চন্দ্র বসুর সাথে দেখাও করেছেন বহুবার। স্বাধীনতা থেকে দেশের পরিবর্তনশীল রাজনীতি, সবকিছুর সাক্ষী রয়েছেন এই পুনেন্দুপ্রসাদ ভট্টাচার্য। দেশের নেহেরু/ গান্ধী পরিবারের হাত থেকে শাসন ক্ষমতা এক গরিব মাতার সন্তানের হাতে গিয়েছে এ বিষয়ে যথেষ্ট নজর রেখেছেন ৯৮ বছর বয়সী এই বীরপুরুষ। কাল স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে এক সাংবাদিকের কাছে নিজের ধারনা তুলে ধরেন পুনেন্দুপ্রসাদ ভট্টাচার্য।

দেশের সাম্প্রদায়িকতা প্রসঙ্গে বেশকিছু প্রশ্ন তোলেন ইনাডু ইন্ডিয়ার সাংবাদিক। সাম্প্রদায়িকতার ব্যাপারে প্রশ্ন তোলে সাংবাদিক জিজ্ঞাসা করেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর ভূমিকা কেমন। উত্তরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রশংসায় মুখরিত হন পুনেন্দুপ্রসাদ ভট্টাচার্য মহাশয়। সাংবাদিক প্রশ্ন তোলেন, মোদী কি সাম্প্রদায়িক? এর উত্তরে পুনেন্দুপ্রসাদ ভট্টাচার্য বলেন,’ মোদী যে সাম্প্রদায়িক তার কোনো প্রমাণ পাইনি।

শুধু এই নয় মমতা সাম্প্রদায়িক কিনা এর উত্তরে বলেন, মমতা মুসলিম সাম্প্রদায়িক। এই বক্তব্য শুনে সাংবাদিক প্রশ্ন তোলেন, তাহলে কি মোদী হিন্দু সাম্প্রদায়িক! উত্তরে পুনেন্দুপ্রসাদ ভট্টাচার্য মহাশয় বলেন, মোদী তার রোল ভালো বজায় রেখেছে। পুনেন্দুপ্রসাদ ভট্টাচার্য জানান যে মোদী যেটা করেছে সেট পরিবারতন্ত্র নয়। অর্থাৎ উনি বুঝিয়ে দেন যে গান্ধী/ নেহেরু পরিবার এতকাল ধরে দেশে পরিবারতন্ত্র চালিয়ে এসেছে কিন্তু নরেন্দ্র মোদী পরিবার তন্ত্র না চালিয়ে দেশের জন্য কাজ করছে।

রাজ্যের কথা উল্লেখ করে পুনেন্দুপ্রসাদ ভট্টাচার্য বলেন, বর্তমান শাসক দল যখন এসেছিল তখন অনেক আশা জাগিয়েছিল কিন্তু তারা হতাশ করেছে। তবে কেন্দ্রের মোদীর উপর আশা আছে উনি সাম্প্রদায়িক নন, বরং গণতন্ত্র চালাচ্ছেন। রাজ্যের শাসক দল ক্ষমতা রক্ষার জন্য যে নীতিগুলো প্রয়োগ করছেন সেগুলো সর্বনাশের দিক ঠেলেদিচ্ছে। নিজেকে সংশোধন না করলে বিপন্ন হবে বলে জানান স্বাধীনতা সংগ্রামী পুনেন্দুপ্রসাদ ভট্টাচার্য মহাশয়।