Press "Enter" to skip to content

আমেরিকায় থাকা ভারতীয়দের উপর এলো বড়ো সমস্যা! এক ঝটকায় সমাধান করলো মোদী সরকার।

আমেরিকার রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর এমন কিছু সিধান্ত নিয়েছিলেন,যাতে ওখান থাকা ীয়দের চাকরির উপর প্রভাব পড়ার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এই রকম পরিস্থিতি যে হতে পারে তা সরকার আগেই অনুমান করে নিয়েছিল। এখন সরকারের প্রয়াসের ফলস্বরূপ ট্রাম প্রশাসন বড়ো নির্ণয় নিয়েছে। আসলে আমেরিকার এইচ ওয়ান বি ভিসার নীতির কারণে আমেরিকায় থাকা ভারতীয়দের কাজের উপর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। ওই বিষয়ের উপর লক্ষ রেখে সরকার রাজনৈতিক স্তরে আমেরিকার সাথে কথাবার্তা সম্পন্ন করেছে। ভারতের আধিকারিকরা হোয়াইট হাউস, ওখানের প্রশাসন ও সংসদের সাথে লাগাতার কথাবার্তা বলেছে যার ফলে রাষ্ট্রপতি ট্রাম্প বড়ো সিধান্ত নিয়েছে।

আমেরিকার ট্রাম্প প্রশাসনের H-1B এর নীতির জন্য তথ্যপ্রযুক্তিতে কর্মরত ভারতীয় নাগরিকদের চাকুরির উপর প্রভাব পড়তে চলেছিল। মোদী সরকার ভারতীয়দের সমস্যার উপর লক্ষ রেখে লাগাতার রাজনৈতিক স্তরে কথা বলেছে। মোদী সরকার আমেরিকার কর্মরত ভারতীয়দের জন্য এতটা প্রয়াস করবে এটা তারা আশা করতে পারেনি।

এখন ট্রাম্প প্রশাসন H-1B এর প্রয়োগের ব্যাপারে ভারতকে আশস্থ করেছে। আমেরিকার এই আশ্বাসের পর আমেরিকায় কর্মরত হিন্দুরা খুবই খুশি হয়েছে এবং শান্তির নিঃস্বাস ফেলতে পেরেছে। এটা মোদী সরকারের জন্যেও একটা বড়ো সাফল্য বলে মনে করা হচ্ছে। 6 সেপ্টেম্বর আমেরিকার বিদেশ মন্ত্রী, সুরক্ষা মন্ত্রীর সাথে ভারতের সুরক্ষা মন্ত্রী ও বিদেশ মন্ত্রীর বৈঠক রয়েছে।

আর তার আগেই মোদী সরকার ভারতকে আশ্বাস দিয়ে ফেলেছে এবং H-1B ভিসার উপর নিয়ম ও সমীক্ষা করে প্রয়োগ করা হবে এবং ভারতীয়দের সমস্যার খেয়াল রাখা হবে। আশ্বাস দিলেও বৈঠকে এই ব্যাপারে কিছু একটা নির্ণায়ক রাস্তা বের করা হবে জানা গেছে। আপনাদের জানিয়ে দি, এই ব্যাপারটি মোদী সরকারের জন্য অনেক বড়ো উপলদ্ধি কারণ বিদেশে ভারতীয়দের প্রভাবকে প্রভাবিত করা একটা শক্তিশালী দেশের পক্ষেই সক্ষম।