Press "Enter" to skip to content

মোদী v/s মনমোহন: প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ যাত্রা নিয়ে বেরিয়ে এলো চমক দেওয়া তথ্য।

কেন্দ্রে বিজেপি সরকার এই ৪ বছরে আসা হয়েছে। আর এই কয়েক বছরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে ভারত যেভাবে বিকশিত হয়েছে তা এখন পুরো বিশ্বে প্রশংসিত হচ্ছে। ভারতের আর্থিক বৃদ্ধি বড়ো বড়ো উন্নত দেশকে পেছনে ফেলে দিয়েছে। আজ ভারত আন্তর্জাতিক স্তরে যে সম্পর্ক গড়ে তুলেছে তার পেছনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর অটুট পরিশ্রম রয়েছে। কিন্তু বিরোধীরা প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ যাত্রার খরচ নিয়ে বহুবার নরেন্দ্র মোদীজিকে আক্রমণ করেছে। আপনাদের জানিয়ে দি, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এর বিদেশ যাত্রার খরচের পরিসংখ্যান বেরিয়ে এসেছে যা এবার বিরোধীদের মুখে লাগাম লাগানোর জন্য যথেষ্ট।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, পূর্ব প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এর থেকে বেশিদিন বিদেশ যাত্রা করেছেন ঠিকই কিন্তু মোদীজি উনার তুলনায় কত খরচ করেছেন সেটা এড়িয়ে যাওয়ার বিষয় নয়। একোনোমিস টাইমস নরেন্দ্র মোদী ও মনমোহন সিং এর সময়ের বিদেশ যাত্রার সমীক্ষা করেছে। একোনোমিস টাইমস মনমোহন সিং এর প্রথম ৪ বছর এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ৪ বছরের যাত্রার অধ্যয়ন করেছে।

বিরোধীরা মোদীজির বিদেশ যাত্রা নিয়ে হট্টগোল করলেও অবাক করার বিষয় যে দুই প্রধানমন্ত্রীর ৪ বছরের যাত্রায় সমান খরচ হয়েছে। শুধু এই নয় এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইটের ব্যাবহারও সমান হয়েছে। প্রথমের ৪ বছরে দুই প্রধানমন্ত্রী এয়ার ইন্ডিয়াকে ৩৮৭ কোটি দিয়েছেন।

ইউপিএ সরকারের আমলে ২০০৯ থেকে ২০১৩ পর্যন্ত ৩৬৮.৩৫ কোটি টাকা প্রদান করেছে সেখানে মোদী সরকারও প্রায় একই পরিমান টাকা এযার ইন্ডিয়াকে প্রদান করেছে। এমনকি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী প্রতিবেশী দেশের ভ্রমণের জন্য ৫ বার bbj বিমান ব্যাবহার করেছেন।আপনাদের জানিয়ে দি, ইউপিএ আমলে মনমোহন সিং ৩৮ টি বিদেশ যাত্রা করেছিলেন সেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ৪৩ বিদেশ যাত্রা করেছেন। জানলে অবাক হবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এমন একজন নেতা যিনি তার বিমানেই তার ঘুম সেরে নেন যেকারণে একটা অতিরিক্ত খরচ এবং অতিরিক্ত সময় তিনি বিদেশ যাত্রা কালে বাঁচাতে সক্ষম হন।