Press "Enter" to skip to content

ভারতের এই হিন্দু কন্যা আমেরিকায় সাংসদ নির্বাচিত হয়ে নিলেন গীতার শপদ! এরপর যা বললেন তা গর্বিত করবে প্রত্যেক ভারতীয়কে।

আমেরিকাতে এবার ২ জন সাংসদ রয়েছেন যারা হিন্দু এবং শ্রীমদ্ভাগবত গীতার উপর শপদ নিয়ে পদ সামলেছেন। প্রথম সাংসদ তুলসী গাবার্ড যিনি আমেরিকান বংশোদ্ভূত। আর দ্বিতীয় হলেন মোনা দাস ইনি ভারতীয় বংশোদ্ভূত। মোনা দাস ভারতের বিহার রাজ্য থেকে উঠে এসে এখন আমেরিকার রাজনীতিতে নিজের প্রভাব বিস্তার করেছেন। মোনা দাস আমেরিকায় ভারতের সংস্কৃতি মান বাড়িয়েছেন।

মোনা দাস আমেরিকার রাজধানী ওয়াশিংটনের সিলেট থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন। মুঙ্গের জেলা থেকে সম্পর্কিত মোনা দাস, ওয়াশিংটন সদনের সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন। মোনা দাস হাতে শ্রীমদ্ভাগবত গীতা নিয়ে শপদ গ্রহণ করেছেন এবং ভারতীয় সংস্কৃতির মান আন্তর্জাতিক স্তরে বাড়িয়েছেন। মোনার পিতামহ বিহারের মেডিক্যাল কলেজ কাজ করতেন, সেখানে উনি সার্জেন ছিলেন। মোনা আমেরিকায় গিয়ে রাজনীতিতে সাফল্যলাভ করেছেন।

মোনা এই প্রথমবার নির্বাচন লড়েছিলেন এবং প্রথমবারেই সফলতা লাভ করেছেন। সাংসদ হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের জন্য শপদ নেওয়ার সময় এলে মোনা বিশ্বের এক সর্বশ্রেষ্ঠ গ্রন্থ তথা শ্রীমদ্ভাগবত গীতার শপদ নিয়ে ভারতীয় সংস্কৃতিকে স্মরণ করেন। জানিয়ে দি ভারতের তথাকথিত সেকুলারবাদীদের কাছে এই বিষয়টি তেমনকিছু গুরুত্বপূর্ণ না হলেও ধর্ম ও সংস্কৃতি নিয়ে সচেতন ব্যাক্তিদের জন্য একটা বড় একটা ঘটনা। মোনা দাস গীতায় শপদ নেওয়ার পর বলেন আমি ভারতীয় মুলের হওয়ার জন্য গর্বিত বোধ করি। একই সাথে উনি পুরো ভারত ঘুরে দেখার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।

পরপর ২ বার সাংসদ থাকা জো ফেইনকে হারিয়েছেন মোনা দাস, এবার উনি সাংসদ হিসেবে কাজ করবেন। উনি বর্তমানে ৪৭ বছরের এবং খুবই ছোটো বয়সে উনি আমেরিকা চলে গেছিলেন। এটা সত্য যে উনি ছোট বয়স থেকেই আমেরিকায় থাকেন কিন্তু উনি ছোট থেকেই ভারতীয় ধর্ম ও সংস্কৃতির সাথে জুড়ে ছিলেন।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.