in ,

বিশাল পরিমান আগ্নেয়াস্ত্র সহ মুর্শিদাবাদে গেপ্তার ১৯ বছরের ছাত্র মোস্তারুল ইসলাম।

এবার পুলিশ আগ্নেয়াস্ত্র সহ গ্রেপ্তার করল এক ছাত্র কে। ছাত্রটি বর্তমানে একাদশ শ্রেনীর পড়ুয়া। তার কাছে পাওয়া গিয়েছে বিপুল পরিমানে আগ্নেয়াস্ত্র। ঘটনাটি ঘটে সুতি এলাকার চাঁদের মোড় অঞ্চলে যেটি অন্তর্গত মুর্শিদাবাদ জেলায়। শনিবার পুলিশ ওই ছাত্রটিকে গ্রেপ্তার করে দুপুর ১২ টা নাগাদ। মুকেশ কুমার যিনি মুর্শিদাবাদ জেলা পুলিশ সুপার, তিনি শনিবার সাংবাদিক সম্মেলন করে জানিয়েছেন যে, এই অভিযান আমরা চালিয়েছি গোপন সূত্রে খবর পেয়ে। আমরা যে একাদশ শ্রেণির পড়ুয়া কে গ্রেপ্তার করেছি তার কাছ থেকে পাওয়া গেছে, ৭.৬৫ এমএম সাইজের ১২টি পিস্তল, ৮৪ রাউন্ড তাজা কার্তুজ, ২৪টি ম্যাগাজিন, ৮ এমএম পাইপগান ৮টি এবং সেই সাথে ছিল ১৬ রাউন্ড ওই পাইপগানের কার্তুজ। পুলিশ এর তরফে জানানো হয়েছে যে, মোস্তারুল ইসলাম নামে সেই অপরাধি ছাত্রটির বয়স হল ১৯ বছর।

মোস্তারুল ইসলাম মুর্শিদাবাদের সামসেরগঞ্জের বাসিন্দা হলেও এখন মালদার কালিয়াচক থানার সুলতানগঞ্জই হল তাঁর বর্তমান ঠিকানা। সেখানকার স্কুলের একাদশ শ্রেনির ছাত্র এই মোস্তারুল। পুলিশ সুপারের তরফে জানানো হয়েছে যে, ফরাক্কা, সামসেরগঞ্জ এইসব এলাকা গুলি থেকে বেশ কিছু দিন ধরে আমরা অস্ত্র উদ্ধার করার সময় মোস্তারুলের নাম আমাদের কাছে এসেছে। পুলিশ সেই পড়ুয়াকে বিগত কিছু দিন ধরেই খুঁজছিল।

পুলিশ আরও জানিয়েছেন যে মোস্তারুল মালদা থেকে অস্ত্র নিয়ে আসত তারপর সেগুলি মোটা টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দিত মুর্শিদাবাদে। তাই তাকে ধরার জন্য পুলিশ উঠে পড়ে লেগেছিল। অবশেষে তাকে শনিবার ধরা গিয়েছে। মোস্তারুল যে শনিবার সুতিতে আসছে অস্ত্র পাচার করতে সেই খবর পুলিশ আগেই পেয়ে যায়। ফলে পুলিশ আগে থেকেই একটা প্লান করে নেয় অপরাধীদের ধরবার জন্য, সেই প্লান মাফিক শুরু হয় কাজ। মোস্তারুল ও তার সঙ্গী যখন সুতিতে এসে পৌঁছায় পুলিশ তাদের পিছু ধাওয়া করা শুরু করে।

সুযোগ বুঝে মোস্তারুলকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ কিন্তু পালিয়ে যায় তার সঙ্গী। পুলিশ তার খোঁজ করার জন্যই এখনও অব্দি তল্লাসি চালাচ্ছেন।
মোস্তারুলের কাছে ছিল ২ টি ব্যাগ। সেই ব্যাগে করেই সে অস্ত্র গুলি আনত। জেরায় মোস্তারুল জানিয়েছে যে, বেশিরভাগ অস্ত্র মালদাতেই তৈরি করা হয়। আর কিছু কিছু অস্ত্র আনা হত বিহার থেকে। মোস্তারুল সেই দিন সুতিতেই একব্যক্তি কে অস্ত্র গুলি দিতে আসছিল বলেও জানা গিয়েছে।
#অগ্নিপুত্র

তিন তালাক নিয়ে অভিনেত্রী পায়েল রাহত্যাগী যা বললেন, তাতে মুখ লুকিয়ে রাখার জায়গা পাচ্ছে না কংগ্রেস ও কট্টরপন্থীরা।

সাধু হত্যার বদলা নিলো যোগী প্রশাসন! আলীগড়ে সাধু হত্যাকারী ২ জিহাদিকে এনকাউন্টার করলো UP পুলিশ।