Press "Enter" to skip to content

মুশারফের পরামর্শ ইমরানকে, ‘ভারতের সাথে লড়তে যেও না, গোটা পাকিস্তান ধূলিসাৎ হয়ে যাবে”

পুলওয়ামা হামলার পর ভারতবাসী আর সরকারের মনে প্রতিশোধের আগুন জ্বলে উঠেছে, আর সেই আগুনেই পাকিস্তানের মনে চরম আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। পাকিস্তানের অবস্থা এতটাই শোচনীয় যে, ভারতের আরেক প্রতিবেশী দেশ নেপালের কাছে গিয়ে ভারতের সাথে কথাবার্তা চালু করার আর্জি জানাচ্ছে পাকিস্তান।

পুলওয়ামায় সিআরপিএফ এর কনভয়ে হামলা করিয়ে পাকিস্তান এমন সমস্যা নিজের কাঁধে নিয়েছে যে, তাঁদের তাঁর পরিণাম ভোগ করতেই হবে। আর এই আতঙ্কে নওয়াজ শরিফের গদি উল্টে ক্ষমতা হাসিল করা কার্গিল যুদ্ধের অপরাধি ও ভুগছে।

FILE PIC

আবুধাবির মিডিয়ার অনুসারে, পারভেজ মুশারফ আর পাকিস্তানের সেনা প্রধানকে পরামর্শ দিয়ে বলে, পাকিস্তান ভারতে পরমাণু হামলা করার কথা যেন মাথায় না আনে। যদি পাকিস্তান একটি পরমাণু বোমা ছাড়ে, তাহলে ভারত একসাথে ২০ টি পরমাণু বোমা ছেড়ে দেবে।

ভারত পাকিস্তানের অস্তিত্ব ধ্বংস করে দেবে। পারভেজ মুশারফ বলেন, মাত্র একটা ছোট ভুলেই গোটা পাকিস্তানের নাম গন্ধ মিটিয়ে দেবে ভারত। তবে কিছুদিন আগে এই পারভেজ মুশারফ বলেছিলেন, ‘পাকিস্তান চুরি পরে বসে নেই। এখন ১৯৭১ এর পাকিস্তান আর নেই” কিন্তু তখন উনি এটা বলতে ভুলে গেছিলেন যে, ভারতও এখন আর ১৯৭১ এ পরে নেই।

কদিন আগেই পাকিস্তানের রেল মন্ত্রী শেখ রাশিদ ভারতকে হুমকি দিয়ে বলেছিল, ‘আমরা বোমা মুখ দেখানোর জন্য রেখে দিইনি” পাক রেল মন্ত্রীও সোজাসুজি পরমাণু হামলার হুমকিই দিয়েছিল। উনি এও বলেছিল, পাকিস্তান অ্যাটমিক পাওয়ার এর দেশ। ভারতের ভাবা উচিৎ।

শেখ রাশিদ ছাড়াও পাকিস্তানের অনেক নেতা আর মন্ত্রীরা টিভির সামনে এসে পরমাণু হামলার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। কিন্তু সেই পাকিস্তানের সরকারই রাষ্ট্র সঙ্ঘ আর অন্য দেশে গিয়ে ভারত যাতে যুদ্ধ না করে তাঁর জন্য সবাইকে কাতর আবেদন করেছিল। মুশারফের এই নতুন বয়ানের পর সবার মুখ বন্ধ হয়ে গেছে। মুশারফ আজকাল পাকিস্তান ছেড়ে দুবাইতে আছেন।

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.