Press "Enter" to skip to content

এক মুসলিম দম্পতি তাদের সদ্যজাত সন্তানের নাম রাখলেন নরেন্দ্র মোদী

নরেন্দ্র মোদীর প্রতি মানুষের ভালোবাসা যে কতটা সেটা কোনোদিনও বলে বোঝানো যাবেনা। শুধু এদেশেই জনপ্রিয় নন তিনি। বিদেশেও ওনার জনপ্রিয়তা নিয়ে কোনো খামতি নেই। বিগত পাঁচ বছরে উনি বিদেশের মাটিতে যতবার পা রেখেছেন, ততবারই ওনাকে দেখার জন্য হাজার হাজার মানুষ জড় হয়েছিলেন। এমনকি আমেরিকার মতো দেশে ওনার বক্তৃতা শোনার জন্য মানুষ ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করেছিলেন।

ভোটের আগে আপনাদের অনেকবার দেখিয়েছি যে, কেউ নিজের সন্তানের বিয়ের কার্ডে নরেন্দ্র মোদীকে ভোট দেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। তো আবার কেউ নরেন্দ্র মোদীর বিগত পাঁচ বছরের কাজের গুন তুলে ধরে এবং রাফালের উপকারিতা তুলে ধরে নিজের বিয়ের কার্ড ছাপিয়েছিলেন।

কিন্তু এবারের কাহিনীটা একটু ভিন্ন। এবার আর বিয়ের কার্ড না। নিজের সদ্যজাত সন্তানের নাম ‘নরেন্দ্র মোদী” রাখলেন এক মুসলিম দম্পতি। এর আগে বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইকের পর এক দম্পতি নিজের সদ্যজাত সন্তানের নাম ফাইটার জেট ‘মিরাজ ২০০০” এর নামে রেখেছিলেন। আর এবার ২৩ মে মোদীর জয় ঘোষণা হতেই, নিজের সন্তানের নাম দেশের প্রধানমন্ত্রীর নামে রাখলেন মুসলিম দম্পতি।

ভারতের মোদী বিরোধী নেতা, নেত্রীরা বরাবরই বিজেপি এবং নরেন্দ্র মোদীকে সাম্প্রদায়িক আখ্যা দিয়ে মুসলিম বিরোধী বলে পরিচয় দেন। কিন্তু, এরপরেও দেশের লক্ষ লক্ষ মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ নরেন্দ্র মোদীকে নিজের নেতা বলে মেনে নেন। কারণ তাঁরা জানেন যে, নরেন্দ্র মোদী মুসলিমদের ভোট ব্যাংক হিসেবে ব্যবহার করেন না।

গত ২৩ মে ফল ঘোষণার পর উত্তর প্রদেশের গোন্ডা জেলায় এক মুসলিম দম্পতির পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। সদ্যজাত সন্তানের বাবা কর্মসূত্রে দুবাইয়ে থাকেন। সদ্যজাতের মা মেনাজ বেগম এর বলেন, ‘ ২৩ তারিখ লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার আমার পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। আমি আমার স্বামীকে ফোন করে এই সুসংবাদ দিই, তিনি কর্মসূত্রে দুবাইতে থাকেন। তিনি আমাকে জিজ্ঞাসা করেন,  নরেন্দ্র মোদী জিতে গেছেন। তাই আমি আমার সন্তানের নাম ওনার নামেই রাখতে চাই। আমি চাই আমার সন্তানও নরেন্দ্র মোদীর মতো ভালো মানুষ হোক, ওনার মতোই দেশের সেবায় কাজ করুক।”

you're currently offline