Press "Enter" to skip to content

জয় শ্রী রাম বলে বজরং দলের কাছে সাহায্য চাইতে পৌঁছালো মুসলিম মহিলা।

আমাদের মধ্যে একটা ধারণা আছে যে মুসলিম সমাজ কখনো বজরং দলকে পছন্দ করে না বরং উল্টে একটু খারাপ চোখেই দেখে। আসলে কোনো ধর্মের উগ্রপন্থার জবাব বেশভালোভাবেই দেয় , এইকারনে ের নামে অনেক কুমন্তব্য ছড়িয়ে সেকুলারপন্থীরা। এই পরিস্থিতি কেউ কল্পনা করতে পারবে না যে কোনো মুসলিম সম্প্রদায়ের কোনো ব্যাক্তি বা মহিলা বিপদে পুলিশের কাছে না গিয়ে ের শরণাপন্ন হবে।

কিন্তু এমনি একটা ঘটনা হয়েছে যখন এক মুসলিম মহিলা তার স্বামীর সাথে আলগভ হওয়ার পর পুলিশের কাছে না গিয়ে বজরং দলের কার্যালয়ে পৌঁছে যান এবং সেখানে গিয়ে সকলকে জয় শ্রী রাম বলেন এবং সাহায্য চান। মহিলা বজরং দলের সদস্যদের জানান যে ভাইয়া আপনারাই একমাত্র আমার সাহায্য করতে পারবেন। ঘটনাটি দেবভূমি উত্তরাখণ্ডের দেরাদুন এলাকার। ৪০ বছরের রাইস খুরেসি ২টি বিয়ে করে রেখেছে।

যে ২১ বছরের মহিলা বজরং দলের কাছে কাছে পৌঁছেছিল উনি খুরেসির ২য় পত্নী এবং কিছুমাস আগেই রাইস এনাকে বিয়ে করেছিল। সম্প্রতি রাইস খুরেসি এই মেয়েটিকে তিন তালাক দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে। জানা যাচ্ছে এই মেয়েটিকে এমন সময় বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছিল যখন মেয়েটি গর্ভবতী ছিল। মেয়েটি খুব গরিব পরিবারের বলে জানা গিয়েছে। বিয়ে হওয়ার কয়েকমাস পর থেকে খুরেসি ও তার প্রথম বিবি এই মেয়েটির উপর চরম অত্যাচার করতে শুরু করে।

মেয়েটি প্রতিবাদ করতে চাইলে এখন রাইস খুরেসি তিন তালাক দিয়ে দেয়। মেয়েটি শেষ পর্যন্ত কিছু রাস্তা না পেয়ে স্থানীয় বজরং দলের কাছে গিয়ে উপস্থিত হয় এবং ন্যায় পাইয়েও দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানাই। বজরং দলের সদস্যরা মেয়েটির দুর্গতি দেখে তাকে সাহায্য করে এবং পুলিশ মূখ্যলয়ের কাছে নিয়ে যায়। পুলিশের আধিকারিকরা উনাকে ন্যায় দেওয়ার অস্বাসন করেছেন।