Press "Enter" to skip to content

মনমোহন সিং এর আমলে ডুবে যাওয়া ৮৩০০০ কোটি টাকা উদ্ধার করলো নরেন্দ্র মোদীর সরকার।

মনমোহন সিং (Manmohan Singh) ও সোনিয়া গান্ধীর আমলে দেশের ডুবে যাওয়া টাকা ফিরিয়ে আনার কাজ শুরু করে দিয়েছে নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) সরকার। দেশের সরকারি ব্যাঙ্কের কোটি কোটি টাকা লুটে হজম করে নেওয়া ব্যাবসায়ীদের আচ্ছে দিন এবার ফুরিয়ে গেছে। ভূষণ স্টিল থেকে ৫৬ হাজার কোটি টাকা বাজেয়াপ্তের পর সরকারের ভয়ে এবার ৩১,০০ ছোট বড় কোম্পানি ব্যাঙ্কের টাকা ফিরিয়ে দিয়েছে। এই অর্থের পরিমাণ প্রায় ৮৩,০০০ কোটি টাকা। ভূষণের সম্পত্তি টাটাকে বিক্রি করে সেই টাকা ব্যাঙ্ককে ফিরিয়ে দিয়েছিল সরকার। যারপর থেকে কোম্পানিগুলোর মধ্যে অস্বস্থি শুরু হয়ে গেছে। আসলে মোদী সরকার ২০১৬ সালে IBC বিল পাশ করিয়েছিল।

এই বিলের ভয় এমন যে ব্যাঙ্ক থেকে লোন নিয়ে ঘুমিয়ে থাকা কোম্পানিগুলো টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য ব্যাঙ্কের সামনে লাইন লাগিয়ে দিচ্ছে। যে কোম্পানিগুলো রল সময় ব্যাঙ্ক থেকে লোন নিয়ে মেটানোর নাম নিত না, তারাই এখন সততার সাথে রাকা ফেরত দিচ্ছে। IBC এর সংশোধন অনুযায়ী, যদি কোনো কোম্পানির উপর NCLT কার্যকর হয়ে যায় তবে ওই কোম্পানি নিলাম হওয়া কোম্পানির জন্য ডাক দিতে পারবে না।

আগে ব্যাপক ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ব্যাঙ্ক থেকে লোন নেওয়া টাকা ফেরত না দেওয়ার চেষ্টা হতো। কিন্তু সরকার এখন ফাঁকি দেওয়ার সমস্থ রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে। যার ফলে ব্যাঙ্কগুলিকে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে না। জানিয়ে দি, যে ৩১০০ কোম্পানি টাকা ফেরত দিয়েছে সেই কোম্পানিগুলি ২০১৪ সালের আগে অর্থাৎ মনমোহন ও সোনিয়ার আমলে ব্যাঙ্ক থেকে লোন নিয়েছিল। সেই সময় সামান্য গান্ধী পরিবারের ঘনিষ্ঠ হলেই ব্যাঙ্ক থেকে লোন দিয়ে দেওয়া হতো। কিন্তু এখন সমস্থ নিয়মের পরিবর্তন করা হয়েছে এবং পুরো পদ্ধতি অবলম্বন করলে তবেই তাকে লোন দেওয়া হয়। নরেন্দ্র মোদীর সরকার ডুবে যাওয়া টাকা উদ্ধার করার জন্যে অনেক নিয়মের পরিবর্তন এনেছে যার ফল এখন হাতেনাতে পাওয়া যাচ্ছে।