Press "Enter" to skip to content

নরেন্দ্র মোদীর মাস্টারস্ট্রোকে ঘায়েল বিদেশী কোম্পানিরা! মোদীর বিরুদ্ধে অভিযোগ আমেরিকার কাছে।

নরেন্দ্র মোদীর মাস্টারস্ট্রোকে ঘায়েল হয়ে পড়েছে বিদেশী কোম্পানীগুলি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর রাষ্টবাদের কারণের ের মতো আমেরিকার দ্বিগজ কোম্পানিরাও চরম সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে। মোদীর নীতি ও রাষ্ট্রবাদের কারণে আমেরিকা জুড়ে বিদেশি কোম্পানিরা হৈচৈ শুরু করে দিয়েছে। বিদেশী কোম্পানী মাস্টারকার্ড ট্রাম্প প্রশাসনের কাছে অভিযোগ পর্যন্ত করে দিয়েছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, মোদী সরকার দেশী পেমেন্ট নেটওয়ার্ক ‘RuPay’ এর প্রমোশন করছে। এর ফলে বিদেশি তাবড় তাবড় কোম্পানিরা সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে। জানলে অবাক হবেন খ্যাতিনামা কোম্পানি মাস্টারকার্ড এর অবস্থা এমন শোচনীয় হয়েছে যে তারা ট্রাম্প প্রশাসনের কাছে অভিযোগ দায়ের করে জানিয়েছে- মোদী সরকার RuPay এর প্রমোশন এর জন্য রাষ্ট্রবাদের সাহায্য নিচ্ছে।

‘MasterCard’ এর দাবি মোদীর রাষ্ট্রবাদের জন্য বিদেশি কোম্পানিগুলি ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। নিউজ এজেন্সি REUTERS এই খবরের নিশ্চয়তা স্বীকার করেছে। ভারত সরকার লাগাতার Rupay কে প্রোমোট করছে যার কারণে MasterCard এর মতো খ্যাতনামা কোম্পানির দাপট শেষ হয়ে যাচ্ছে। ভারতে মোট কার্ডের ৫০% কার্ড তথা ৫০ কোটি কার্ডের জন্য RuPay এর ব্যবহার করা হচ্ছে।

সোজা ভাষায় ভারত সরকারের রাষ্ট্রবাদের কারণে ভারতীয় বাজারে আমেরিকার মাস্টারকার্ড বিস্তার লাভ করতে পারছে না। প্রধানমন্ত্ৰী মোদী দেশীকার্ড পেমেন্টের বার বার সমর্থন করে বলেছেন, RuPay এর ব্যবহার করা দেশের সেবা করা। কিছুদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীর উদেশ্য এ বলেছিলেন, রুপে কার্ড ডিজিটাল পেমেন্টের ক্ষেত্রে ক্রান্তিকারী পরিবর্তন আনছে। মোদীজি বলেছেন আমরা যদি ের ব্যাবহার করি সেটাও দেশ সেবা।

সবাই বর্ডারে গিয়ে দেশসেবা করতে পারবে না কিন্তু RuPay ব্যাবহার করেও দেশসেবা করা সম্ভব কারণ এতে দেশের টাকা বাইরে যায় না এমনটাও বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। কারন এতে ট্রানজাকসন ফী দেশের মধ্যেই থাকে , বিদেশে যায় না। যার ফলে দেশে স্কুল, কলেজ গড়তে ও অন্যান্য বিকাশ করতে অর্থের পাওয়া যাবে। এর আগে নিউইয়র্কের পেমেন্ট কোম্পানি একইভাবে মোদীর নীতির বিরোধ করেছে কারণ তারা ভারতে বাজার হারাচ্ছে।