Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানের সাপ্লাই লাইন কাটল প্রধানমন্ত্রী মোদী, ইমরান বলল ‘সুইসাইড করব”

গোটা পাকিস্তান আজকাল একটি বুলি আউরে যাচ্ছে, আর সেটা হল সুইসাইড। আর তাঁর প্রধান কারণ হল, পাকিস্তানের উপর কয়েক হাজার কোটি টাকার ঋণের তলায় ডুবে আছে। এখন পাকিস্তানের জনতাকে বড়বড় স্বপ্ন দেখানো এবং নতুন পাকিস্তান বানানোর প্রতিশ্রুতি দেওয়া পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দ্বারাও দেশ সামলানো যাচ্ছেনা। দেশের ক্ষমতায় আসার পর তিন মাস পর্যন্ত ইমরান খানের অহংকার বেড়ে গেছিল। কিন্তু পাকিস্তানের আসল রুপ সামনে আসতেই উনিও প্রকৃত সত্যটা বুঝতে পারল।

পাকিস্তানের জনতার জন্য ইমরান খানের ক্ষমতা তখনই বোঝা গেলো যখন, টিভি চ্যানেল গুলোতে দেশ নিয়ে নানারকম চর্চা আর তর্ক শুরু হল। এখন অবস্থা এতটাই শোচনীয় যে, ইমরান খানকে সুইসাইড করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। আপনাদের জানিয়ে রাখি পাকিস্তানের মাথায় ৩০ হাজার বিলিয়নের ঋণ আছে। আর দেশের ৬০ শতাংশ জনতা দারিদ্র সীমার নীচে বসবাস করে।

এখন প্রতিটি পাকিস্তানি আনুমানিক দেড় লক্ষ টাকার ঋণী, আর এই দেশের টাকা গর্তের মধ্যে ঢুকে গেছে। ২০২৫ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানে জল শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু পাকিস্তানি সরকার এখনো বোম বারুদ আর জঙ্গিপনা ছাড়া কিছুই ভাবছে না। আর তাঁদের এই কাজই পাকিস্তানকে একদম ভিখারি দেশ বানিয়ে দিয়েছে। আর এটা হয়েছে আমাদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কারণে।

পাকিস্তানকে যখন হাজার বার বুঝিয়ে, নানারকম ভাবে কথাবার্তা বলেও বোঝানো গেলো না। তখন ওরা যেই ভাষায় বোঝে, সেই ভাষাতেই ওদের শিক্ষা দেওয়া হল। আর সেটার প্রভাব সোজাসুজি গিয়ে সীমান্তের ওপারে পরল, যেটা ওদের সাত জন্ম পর্যন্ত মনে রাখতে হবে।

আড়াই বছর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী পাকিস্তানের থেকে বদলার নেওয়ার সংকল্প নিয়েছিলেন। আর তারপর হয়েছিল স্যার্জিক্যাল স্ট্রাইক। শুধু সীমান্তেই না, মোদী সরকারের কূটনৈতিক বুদ্ধির ফলে পাকিস্তানকে বিশ্বের প্রতিটি যায়গা থেকেও বাহির করে দেওয়া হয়েছে।

মোদী সরকার প্রথমে সীমান্ত পেরিয়ে স্যার্জিক্যাল স্ট্রাইক করেছিল। রাষ্ট্র সঙ্ঘ প্রথমবার পাকিস্তানকে জঙ্গি দেশের তকমা দেয়। আমেরিকা পাকিস্তানকে ফান্ড দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। সার্ক কাউন্ট্রিতে পাকিস্তানকে আলাদা নজরে দেখা হল, আর সন্ত্রাসবাদ রোখার জন্য পাকিস্তানের সাথে আলাদা ভাবে কোন কথা না বলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর এই কূটনৈতিক চাল গুলোর জন্যই আজ পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান গোটা বিশ্বে ভিক্ষার ঝুলি নিয়ে ঘুরছে।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.