Press "Enter" to skip to content

৬০ বছরের দীর্ঘ অপেক্ষা শেষ! মোদী আমলেই ভারতীয় সেনা পেতে চলেছে বিশ্বস্তরীয় জাতীয় মেমোরিয়াল।

ভারতীয়দের জন্য খুবই লজ্জার ব্যাপার এই যে এখনো পর্যন্ত ভারতীয় সমাজ বীর সেনাদের প্রাপ্ত সম্মান প্রদান করতে পারেনি। এমনকি ভারতীয়রা ইংল্যান্ডের ডাকাত রানী ভিক্টোরিয়ার সম্মানে কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমেরিয়ালে গিয়ে উৎপাত করে, কিন্তু এখনো অবধি দেশের রক্ষাকর্তা সেনাদের জন্য কোনো তৈরির দাবি তোলার প্রয়োজন মনে করে না। স্বাধীনতার পর থেকে প্রায় এক তরফা দেশে শাসন চালিয়েছে কংগ্রেস পার্টি। কিন্তু সেনাদের সম্মান তো দূর বরং বার বার আপত্তিজনক শব্দ ব্যবহার করে সেনাকে অপমান করেছে ভারতীয় । বামপন্থীদের সাথে মিলে ভারতীয় সেনাকে কয়েকবার ধর্ষনকারী বলেও আখ্যা দিয়েছে কংগ্রেস।

এমনকি পাকিস্থানে গিয়ে ভারতীয় সেনা বিরোধী মন্তব্য করে এসেছে কংগ্রেসের উচ্চস্তরীয় নেতারা। তবে এখন মোদী সরকার ভারতীয় সেনাদের প্রাপ্ত সম্মান দেওয়ার জন্য দৃঢ় প্রতিজ্ঞ হয়েছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী মোদী সরকার ওয়ার্ল্ড ক্লাস ওয়ার মেমোরিয়াল উদ্বোধন করতে চলেছে। এই মেমোরিয়াল ২২,৬০০ জন বিড় সেনাকে সমর্পিত করা হবে যারা দেশের জন্য নিজের প্রাণ বলিদান দিয়েছেন।

()  তৈরির পস্তাব ৬০ বছর থেকে চলে আসছে কিন্তু পস্তাব কখনো বাস্তবায়িত হতে পারেনি। জানিয়ে দি, ২৫ শে জানুয়ারি প্ৰধানমন্ত্রী রাজপথে ইন্ডিয়া গেটের সামনে এর উদ্বোধন করতে পারেন। সেনার এক সিনিয়র আধিকারিক বলেছেন, ‘অবাক করার বিষয় যে বিশ্বের মেজর দেশগুলির মধ্যে ভারত একমাত্র যেখানে নেই।’ এই ন্যাশনাল ওয়ার করতে মোট খরচ হয়েছে ১৭৬ কোটি টাকা।

২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর ২০১৫ সালে মোদী সরকার এই মেমোরিয়াল এর পস্তাবে অনুমতি দেন। ২০১৮ সালের ১৫ আগস্ট এই মেমোরিয়াল এর উদ্বোধনও করতে চেয়েছিলেন প্ৰধানমন্ত্রী মোদী। কিন্তু নির্মাণ কার্যে দেরী হওয়ায় ২৫ শে জানুয়ারি এই মেমোরিয়ালের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। মেমোরিয়ালের মধ্যে অমর চক্র, বীর চক্র, ত্যাগ চক্র ও রক্ষা চক্র প্রাপ্ত বালিদানিদের সমগ্র সুন্দরভাবে সাজানো থাকবে। একইসাথে ১৫ মিটার লম্বা একটা স্মৃতি স্তম্ভ তৈরি করা হয়েছে। ওই মেমোরিয়াল এর কাছে একটা মিউজিয়াম তৈরি করা হবে যেটা সম্পূর্ন হতে অবশ্য কিছু বছর সময় লাগবে। এই জন্য ৩৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে বলে জানিয়েছেন সৈন আধিকারিকরা।

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.