Press "Enter" to skip to content

সন্ত্রাসবাদের জনক বাজওয়া কে গলায় জড়িয়ে ধরা কংগ্রেস নেতা সিধু কাশ্মীর হামলা নিয়ে এখনো চুপ

পুলওয়ামা জঙ্গি হামলায় শহীদ ভারতের ৪৪ জওয়ান। শুধু ভারতেই নয়, গোটা বিশ্বে শোকের ছায়া। বিশ্বের অনেক শক্তিধর দেশগুলো ভারতের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে আর তাঁরা জঙ্গি মোকাবিলায় ভারতের সাহাজ্য করবে বলেও জানিয়েছে। কিন্তু এদের সবার থেকে ভিন্ন আমাদের দেশের সবথেকে পুরানো রাজনৈতিক দল কংগ্রেস।

পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর কংগ্রেসের তাবড় তাবড় নেতারা রাজনীতি শুরু করে দিয়েছে। আবার কেউ কেউ এর বদলা কবে নেওয়া হবে জানতে চেয়েছে, কিন্তু ভারতের তরফ থেকে এর বদলা নিলেই আবার ওরা মরা কান্না শুরু করে দেবে। কেউ প্রমাণ চাইবে। আবার কেউ বলবে বদলা নয় শান্তি চাই।

Pro-Khalistan Activist Gopal Singh Chawla with sidhu

আরেকদিকে আমাদের প্রধান শত্রুদেশ পাকিস্তান আবার কংগ্রেসের চরম সমর্থক। তাঁরা সর্বসমক্ষে ঘোষণা করে যে, ভারতে কংগ্রেস সরকার চায়। আর এখন পুলওয়ামাতে জঙ্গি হামলার পর কংগ্রেসের একটাও নেতা এখনো পর্যন্ত পাকিস্তানকে নিয়ে কোন মন্তব্য করেনি।

গতকাল কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদিপ সিং সুরজেওয়ালা পুলওয়ামা হামলা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আলোচনা করেন। কিন্তু দুঃখের বিষয় হল পাকিস্তানকে নিয়ে কিছু বলেন নি! জৈশ এ মোহম্মদ পাকিস্তানের জঙ্গি সংগঠন। ভারতে হামলা করার আগে এরা ৫ই ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের করাচিতে একটি র‍্যালি করে ভারতের বিরুদ্ধে নাশকতা চালানোর ঘোষণা করে।

আরেকদিকে এই কংগ্রেস দলই কিছুদিন আগে পাকিস্তানের খুব প্রশংসা করেছিল। পাকিস্তানের সবথেকে বড় সন্ত্রাসবাদী কামার জাভেদ বাজওয়া যিনি এখন পাক সেনা প্রধান। ওনাকে গলায় জড়িয়ে ধরা কংগ্রেসের নেতা ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার নবজ্যোত সিং সিধু এখনো পর্যন্ত পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গিদের নিয়ে কোন সমালোচনা করেন নি!

নবজ্যোত সিং সিধু হল সেই ব্যাক্তি যিনি পাকিস্তানে গিয়ে পাক সেনা প্রধান এবং সন্ত্রাসবাদের জনক বাজওয়া কে গলায় জড়িয়ে ওনাকে ভাই বলে ডেকেছিল। এমনকি তিনি পাকিস্তানে গিয়ে খালিস্তানি জঙ্গির সাথেও ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়েছিল।

খালিস্তান হল সেই জঙ্গি সংগঠন যারা পাঞ্জাবকে ভারত থেকে আলাদা করতে চায়। আরেকদিকে মধ্যপ্রদেশে নির্বাচনী প্রচারের সময় সিধুর সভা থেকে ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ” এর স্লোগান ও উঠেছিল। এরপরেও এদের দেশভক্ত বলা চলে কি? এরা বিরোধী হয়ে এত কিছু করতে পারলে। ক্ষমতায় আসলে কি করবে? সেটা ভেবে দেখেছেন? এদের ভোট দেওয়ার আগে, একবার না হাজারবার ভাবুন।

6 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.