Press "Enter" to skip to content

মুসলিমদের সংরক্ষণ দেবে শিবসেনা, কংগ্রেস আর NCP সমর্থনে গঠন হতে পারে সরকার

মুম্বাইঃ মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক দৃশ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের গুঞ্জন উঠতেই এনসিপি তাদের কার্ড খুলতে শুরু করেছে। দলের সভাপতি শরদ পাওয়ারও এরকমই কিছু ইঙ্গিত দিয়েছেন। কংগ্রেস সভাপতি সনিয়া গান্ধীর সাথে দেখা করার পর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শরদ পাওয়ার বলেন, ভবিষ্যতে ওনার দল স্ট্যান্ড বদলাতে পারে। এরপর এনসিপি এর মুম্বাইয়ের সভাপতি নবাব মালিক শিবসেনার নেতৃত্বে সরকারে যোগ দেওয়া নিয়ে বড় বয়ান দিয়েছেন। উনি বিজেপির উপর অভিযোগ তুলে বলেন, বিজেপির সরকার হলেই ধর্ম নিয়ে রাজনীতি শুরু হবে।

নবাব মালিক বলেন, যদি শিবসেনা বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করে এনসিপি-র কাছে সমর্থন চায়, তাহলে পার্টি শিবসেনাকে সমর্থন দেবে। আর কংগ্রেসকেও এরজন্য রাজি করবে। ফলাফল ঘোষণা হওয়ার ১২ দিন অতিক্রান্ত হয়ে গেছে, এখনো পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে কেউ সরকার গড়ার জন্য রাজ্যপালের কাছে দাবি পেশ করেনি। নবাব মালিক বলেন, বিজেপি শিবসেনাকে পাঁচ বছর পর্যন্ত অপমান করেছে। উনি আশ্বাস দিয়ে বলেছেন যে, কংগ্রেসের সাথে আমরা কথা বলে নেব, কিন্তু আগে শিবসেনা সিদ্ধান্ত নিক।

শিবসেনার বিচারধারা নিয়ে মুম্বাইয়ের এনসিপি সভাপতি বলেন, ওনার বিচারধার শিবসেনার পথের কাটা হবেনা। উনি দাবি করে বলে, বিজেপির সাথে আলাদা হলেই শিবসেনার বিচারধারা পালটে যাবে। উনি বলেন, কংগ্রেসের মধ্যে শিবসেনাকে সমর্থন দেওয়া নিয়ে কোন বিরোধ নেই। নবাব মালিক শিবসেনার সাথে সরকার গঠন করে মুসলিমদের সংরক্ষণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়ে ফেলেছেন। আরেকদিকে শিবসেনা এই নিয়ে এখনো চুপ আছে।

শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত দাবি করে বলেছেন যে, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী শিবসেনা থেকেই হবে। শিবসেনার মুখপত্র ‘সামনা” কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাউত বলেন, মহারাষ্ট্রের রাজনীতি বদলাচ্ছে, আর মানুষ যেটাকে হাঙ্গামা বলছে, সেটা ন্যায় বিচারের লড়াই। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, শিবসেনা মুখ্যমন্ত্রী পদ নিজের কাছে রেখে, দুটি উপ মুখ্যমন্ত্রী বানাতে পারে। কংগ্রেস আর এনসিপি এর কোটায় একটি করে উপ মুখ্যমন্ত্রী দেওয়া হতে পারে। যদিও কংগ্রেসের তরফ থেকে এই নিয়ে এখনো কোন কথা হয়নি।