Press "Enter" to skip to content

অযোধ্যাতে রামচন্দ্র এয়ারপোর্ট তৈরির জন্য কাজ শুরু করলো যোগী সরকার! দেওয়া হলো ২০০ কোটি টাকার মঞ্জুরি।

অযোধ্যাতে রাম মন্দির নির্মাণের কার্য কবে থেকে শুরু হবে তার ব্যাপারে আপাতত কেউ কিছু বলতে পারছে না। কিন্তু রামের নগরে প্রস্তাবিত শ্রীরামচন্দ্র এয়ারপোর্টের জন্য উত্তর প্রদেশের যোগী আদিত্যনাথ সরকার ২০০ কোটি টাকা মঞ্জুরি করে দিয়েছেন। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী এই রাশি অযোধ্যায় হওয়া শ্রীরামচন্দ্র এয়ারপোর্টের জন্য ভূমি অধিগ্রহনের জন্য দেওয়া হয়েছে।
আসলে শ্রীরামচন্দ্র এয়ারপোর্ট অযোধ্যাতে ৪৬৪ একর জমিতে বানানো হবে, যার জন্য অধিগ্রহনের কাজ চলছে। বর্তমান স্থিতিতে এয়ারপোর্ট বানানোর জন্য এখনো অনেকটা জমির দরকার আছে। এটিকে মেগা প্রজেক্টের জন্য ৪৬৪ জমির মধ্যে ১৭৭ জমি জোগাড় করতে পারা গেছে যেখানে ২৮৭ একর জমির অধিগ্রহণ করা বাকি আছে।

শেষ ভূমি অধিগ্রহণ করার জন্য প্রশাসন জেলার কিষাণ, আবাসিক এলাকার লোকেদের সাথে কথাবার্তা বলছে, এরপর এই জমির অধিগ্রহণ করা হবে। যোগী সরকার এই উদ্দেশ্যের জন্য দ্বিতীয় কিস্তি হিসাবে ২০০ কোটি টাকার রাশি মঞ্জুরি করেছে। অযোধ্যাতে তৈরি হওয়া শ্রীরামচন্দ্র এয়ারপোর্ট এর জন্য মোট ৬ আরব ৪০ কোটি ২৬ লাখ ৯৬ হাজার ৫০১ টাকার বাজেট স্বীকৃত করা হয়েছিল যেটায় প্রথমেই মার্চে ২ কোটি টাকা মঞ্জুরি করে দেওয়া হয়েছিল।

গতবছর ডিসেম্বরে যোগী সরকার  নিজের পরিপূরক বাজেটে অযোধ্যাতে হওয়া এয়ারপোর্টের জন্য বাজেটে ব্যাবস্থা করেছে। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ দীপাবলী পর্ব উপলক্ষে আয়োজিত লণ্ঠন উৎসবে অযোধ্যাতে ভগবান শ্রীরামের নামে এয়ার পোর্টের স্থাপনার ঘোষণা করেছে।
এর আগে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ নভেম্বরে বড় ঘোষণা করে বললেন ফাইজাবাদের নাম বদলে অযোধ্যা করে দেয়। এর সাথেই মুখ্যমন্ত্রী যোগী বলেন জেলায় শ্রীরামের নামে এয়ার পোর্ট হলে সেখানে দশরথের নামে মেডিক্যাল কলেজ ও মাতা কৌশলয়ার নামে বৃদ্ধাশ্রম বানানো হবে।

you're currently offline