Press "Enter" to skip to content

প্রধানমন্ত্রী মোদী ভারতের এই শহরে এয়ারপোর্ট নির্মাণের অনুমতি দেওয়ায়, ঘুম উড়লো চীন সরকারের।

পূর্ব ভারতে অবস্থিত অরুনাচল রাজ্যের রাজধানীতে এয়ারপোর্ট তৈরির অনুমতি দিয়ে দিয়েছে মোদী সরকার। অরুণাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্ডু ওর জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এবং বলেছেন এই সিদ্ধান্তের ফলে অরুনাচল প্রদেশের বহু দশক পুরানো স্বপ্ন পূরণ হবে। এই এয়ারপোর্ট তৈরির জন্য ১০৫৫ কোটি টাকা খরচ হবে। এই প্রজেক্টকে পাবলিক ইনভেসমেন্ট বোর্ড মঞ্জুরি দিয়েছে। চীনের সীমার খুব কাছে এই এয়ারপোর্ট তৈরি হওয়ার কারণে সামরিক দিক থেকেই এটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। চীন বরাবরই অরুনালচল প্রদেশের উপর নিজের অধিকার দেখিয়ে এসেছে। এই কারণে এয়ারপোর্ট চীনের সমস্যা বেশ ভলোরকম বৃদ্ধি করবে। পেমা খান্ডু টুইট করে লিখেছেন টিম অরুনাচলের জন্য এটা খুশির খবর যে রাজধানীতে এয়ারপোর্ট তৈরির জন্য PIB ১০৫৫ কোটি টাকা মঞ্জুরি দিয়েছে।

উনি লিখেছেন যে রাজধানীতে এয়ারপোর্ট তৈরি তাদের বহুদিনের পুরানো স্বপ্ন। এই প্রজেক্টকে মঞ্জুরি দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন পেমা খান্ডু। মুখ্যমন্ত্রী প্রেমা প্রধানমন্ত্রী মোদীর সাথে বৈঠকের পর মিডিয়ায় কাছে জানিয়েছিলেন যে জানুয়ারি মাসে অরুনাচল প্ৰদেশের রাজধানী ইটানগরে এয়ারপোর্ট নির্মাণের খবর সামনে আসতে পারে।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, কেন্দ্রের বিজেপি সরকার নর্থ ইস্ট এর বিকাশের উপর বেশ জোর প্রদান করেছে। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী মোদী আসাম ও অরুনাচল প্রদেশকে জুড়ে দেওয়া বগীবিল ব্রিজের উদ্বোধন করেছেন। সেই সময় অরুনাচলের রাজধানীতে এয়ারপোর্ট নির্মাণের কথা সামনে এসেছিল। মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন যে রাজধানী ইটানগরের কাছে অবস্থিত হলঙ্গী এয়ারপোর্টের জন্য সমস্থ বাধা সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

জানুয়ারি মাসে প্রধানমন্ত্রী মোদী এই এয়ারপোর্টের আধারশিলা প্রতিষ্ঠা করবেন। মনে করা হচ্ছে যে এই এয়ারপোর্ট সিকিমের নূতন তৈরি এয়ারপোর্টের থেকে বেশি সুবিধাশালী হবে। এয়ারপোর্ট নির্মাণের জন্য প্রথম ধাপে ৩৫০ কোটি টাকা খুব শীঘ্রই প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছেন অরুনাচলের মুখ্যমন্ত্রী। এই এয়ারপোর্ট অরুনালচলবাসীর স্বপ্ন পূরণের সাথে সাথে চীনের ঘুম ভাঙার কাজ করবে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.