Press "Enter" to skip to content

এবার রাফেলের নাম পর্যন্ত ভুলে যাবে কংগ্রেস! রাহুল গান্ধীর উপর বড় পর্দাফাঁস করলেন রক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

এই মুহূর্তে দেশের রাজনৈতিক মহল লোকসভা নির্বাচন ঘিরে উত্তেজিত হয়ে রয়েছে। কারন আর কয়েক মাস পরেই দেশজুড়ে হতে চলেছে লোকসভা নির্বাচন। আর এই নির্বাচন কে ঘিরে বিভিন্ন সার্ভে এবং দেশের মানুষের কথা শুনে এটাই বোঝা যাচ্ছে যে, এবারের লোকসভা নির্বাচনেও বিজেপি কে হারানো সম্ভব নয়। কারন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীজির কাজকর্ম দেখে এখন দেশের প্রতিটি মানুষকে বেশ ভলোরকম প্রভাবিত করতে সক্ষম হয়েছে। রাফেল ইস্যুতে কিছুদিন আগে দেশের অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি কংগ্রেসের সমস্ত মিথ্যা দাবির বিরুদ্ধে এমন জবাব দিয়েছেন যে কংগ্রেসের মুখ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। আর এবার রাফায়েল ডিল নিয়ে মুখ খুললেন দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। উনি এবার এমন কিছু বললেন যেটাই খুলে গেল কংগ্রেসের পোল। আর রাহুল গান্ধী সহ সমস্ত কংগ্রেস দলের মুখ পুরো বন্ধ হয়ে গেল।

এ ব্যাপারে যারা জানেন না তাদের উদ্দেশ্যে জানিয়ে রাখি ভারত সরকার এবং ফ্রান্স সরকারের মধ্যে একটা ডিল হয়। সেখানে রাফায়েল বিমান কেনার জন্য ভারত সরকার চুক্তিবদ্ধ হয়। কারণ এই রাফায়েল যদি ভারত আছে তাহলে ভারতীয় বায়ুসেনার শক্তি আগের থেকে অনেক গুন বেড়ে যাবে। আর এটাই হচ্ছে কংগ্রেসের সব থেকে বড় অসুবিধা, কারণ কংগ্রেস জানে যে এই ডিল সম্পূর্ণ হলে ভারত আরো শক্তিশালী হয়ে উঠবে। তাই তারা মোদির বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনছে যে বিজেপি পার্টি এই রাফায়েল নিয়ে দুর্নীতি করেছে। যেখানে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট রায় দিয়ে জানিয়ে দিয়েছে যে কোনো দুর্নীতি করা হয়নি সেখানে কংগ্রেস অনবরত একই কথা বলে চলেছেন কংগ্রেস। কারণ কংগ্রেস চাই ভারতের হাতে যাতে রাফায়েল বিমান না আসে।

গত শুক্রবার লোকসভাতে অনেক তর্ক-বিতর্কের পর দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নির্মলা সীতারামন বলেন, যে ২০২২ সালের মধ্যে সব ক’টি রাফায়েল বিমান অর্থাৎ ফ্রান্সের চুক্তিবদ্ধ হওয়া ছত্রিশটি রাফায়েল বিমান ভারতীয় বায়ুসেনা হাতে চলে আসবে। এবং ওই দিন উনি আরো বলেন তিনি বলেন যে এছাড়াও এই বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে তুলে দেওয়া হবে ১ টি রাফায়েল বিমান। রাহুল গান্ধীকে আক্রমণ করে নির্মলা সীতারামন বলেন, নামের পেছনে গান্ধী টাইটেল লাগিয়ে নেওয়ার অর্থ এই নয় যে আপনি প্রধানমন্ত্রীর ওপর মিথ্যা অভিযোগ করার অধিকার পেয়ে যাবেন। জানিয়ে দি, রাহুল গান্ধীর আসল নাম রল ভিনচ এবং সোনিয়া গান্ধীর আসল নাম অন্তনিয়া মাইনো। শুধুমাত্র রাজনৈতিক ফায়দা তোলার জন্য এনার নিজেরদের নাম লুকিয়ে গান্ধী টাইটেলের আড়ালে রয়েছেন।

রাজনৈতিক মহল মনে করছেন যে অরুণ জেটলি ও রক্ষামন্ত্রীর পর পর জবাবের পর রাহুল গান্ধীসহ পুরো কংগ্রেসের যেমন একদিকে মুখ বন্ধ হয়ে গেল। তেমনি অপরদিকে এর পরে আর কোন দিন এই ডিল নিয়ে বিজেপির উপর মিথ্যারোপ লাগানোর আগে অন্তত দশবার ভাববে কংগ্রেস দল।
#অগ্নিপুত্র

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.