Press "Enter" to skip to content

ভারত-পাক উত্তেজনার মাঝেই প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর বড় পদক্ষেপ, কয়েক হাজার কোটি টাকার প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কেনার দেওয়া হল অনুমতি

বালাকোটে ভারতের দ্বারা করা হাওয়াই হামলার পর ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যে সিমানে উত্তেজনা বেড়েছে। আর এরই মধ্যে সরকার ২৭০০ কোটি টাকার প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কেনার অনুমতিও দিয়ে দিলো। সংবাদ সংস্থা পিটিআই এর অনুসারে, বুধবার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের নেতৃত্বে প্রতিরক্ষা অধিদপ্তর পরিষদ (ডিএসি) এর বৈঠকে প্রায় ২৭০০ কোটি টাকার প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম কেনার অনুমতি দেওয়া হয়।

ভারতীয় নৌসেনার জন্য ক্যাডেট প্রশিক্ষণ জাহাজের কেনার অনুমতি দেওয়া হয়। যা প্রশিক্ষণার্থী মহিলা অফিসার সমেত ক্যাডেট আধিকারিকদের মৌলিক সামুদ্রিক প্রশিক্ষণের জন্য ব্যাবহার করা হবে। এই জাহাজ হাসপাতালের কাজ ও করবে।

এই জাহাজে মানবিক সহায়তা প্রদান, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে ত্রাণ প্রদান, তল্লাশি এবং রেসকিউ অপারেশন এর কাজে ব্যাবহৃত করা হবে। ভারত পাক উত্তেজনার মাঝে এই সিদ্ধান্ত আরও চাপে ফেলতে চলেছে পাকিস্তানকে। এমনিতেই পাকিস্তানের থেকে ভারতের প্রতিরক্ষা বাজেট অনেক গুন বেশি। আবার তাঁর মধ্যে নতুন করে শপিং করা পাকিস্তানকে চিন্তায় ফেলতে চলেছে।

কেন্দ্রে মোদী সরকার আসার পর থেকেই বিভিন্ন দিক থেকে সেনাকে মজবুত করার কাজ চলছে। কখনো বিধ্বংসী রাফাল তো কখনো আমেরিকা থেকে ভয়ানক চিনুক। ইজরায়েল থেকেও প্রচুর ভয়ানক অস্ত্র কিনেছে মোদী সরকার। যেগুলো কাল পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হাওয়াই হামলা করার সময় ব্যাবহার করা হয়েছে। এবং রাজস্থানে পাকিস্তানের ড্রোনকে ধ্বংস করার জন্যও ইজরায়েলের মিসাইল ব্যাবহার করা হয়েছে।

শুধু তাই নয়, সেনাদের জন্য বুলেট প্রুফ জ্যাকেট আর বুলেট প্রুফ হেলমেট ও কিনেছে মোদী সরকার। এবং ডিআরডিও দিন দিন নতুন নতুন সম্পূর্ণ ভারতীয় প্রযুক্তিতে তৈরি মিসাইলের পরীক্ষা করেই চলেছে। মোদী সরকারের আশা ছিল দেশের সাথে সাথে দেশের সেনাদের ও মজবুত করতে হবে। আর সেই আশাই বাস্তবায়িত হতে চলেছে।

7 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.