Press "Enter" to skip to content

আর প্যালেট না, এবার কাশ্মীরি পাথরবাজদের নতুন পদ্ধতিতে চরম শিক্ষা দেবে ভারতীয় সেনা

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক কাশ্মীরে পাথরবাজদের শিক্ষা দেওয়ার জন্য এক নতুন পদ্ধতি অবলম্বন করতে চলেছে। সুত্র অনুযায়ী,  ভারতীয় সেনা এখন তীক্ষ্ণ আওয়াজ করা এক টেকনলজি ব্যাবহার করে কাশ্মীরে পাথরবাজদের ঘুম উড়াতে চলেছে। এর মানে এটাই যে, আগামী দিনে কাশ্মীরে পাথরবাজদের উপর খুব কম প্যালেট গান ব্যাবহার করা হবে।

এই তীক্ষ্ণ আওয়াজ করা টেকনলজি কানে প্রচণ্ড ব্যাথা সৃষ্টি করা ধ্বনি তরঙ্গের সৃষ্টি করবে। আগামী দিনে জম্মু কাশ্মীরে পুলিশ আর সেনা এই টেকনলিজি ব্যাবহার করে পাথরবাজদের কানের পর্দা ফাটিয়ে দিতে চলেছে।

এই সনিক হাতিয়ার হল Long Range Acoustic Device (LRAD)। সবার প্রথমে এই ব্যাবহার পিটসবার্গ, আমেরিকাতে জি-২০ সন্মেলনে ক্ষুব্ধ ভীরকে কাবু করার জন্য ব্যাবহার করা হয়েছিল। জম্মু কাশ্মীরে অনেকবার পাথরবাজদের জন্য সেনা জঙ্গিদের এনকাউন্টার করতে গিয়ে সমস্যার সন্মুখিন হয়েছে।  LRAD  নামের এই টেকনলজি এনকাউন্টারের সময় ভীরকে বিচ্ছুরিত করতে কাজে আসবে। এই সিস্টেমের ব্যাবহার করে সেনা সহজেই নিজের কাজ করে বেড়িয়ে আসতে পারবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সেন্ট্রাল আর্ম ফোর্সকে এই টেকনলজি কেনার আদেশ দিয়ে দিয়েছে। যদিও LRAD এর ব্যাবাহারের ক্ষেত্রে অনেক সমালোচনা হতে পারে। কারণ এই সিস্টেম ব্যাবহারের ফলে অনেক সময় শ্রবণ শক্তি পুরোপুরি লোপও পেয়ে যায়। যদিও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, এই ডিভাইসের ব্যাবহারের সময় অতিরিক্ত সুরক্ষা এবং হামলাকারীদের যাতে বেশি ক্ষতি না হয় সেটা দেখতে হবে।

মন্ত্রালয়ের থেকে জারি করা একটি নোটে বলা হয়েছে যে, এই ডিভাইস নির্মাণকারী সংস্থাকে মানুষের কানে হওয়া ক্ষতির ব্যাপারে লিখতে হবে। এছাড়াও এই টেকনলজির ব্যাবহারের আগে ভারতীয় সংস্থা এবং স্বাস্থ সংগঠন গুলোর থেকে অনুমতি নিতে হবে।