Press "Enter" to skip to content

শেষ অবধি মোদীর নীতির কাছে হার মানলো মমতার সরকার! এবার উপকৃত হবেন পশ্চিমবঙ্গের সাধারণ জনগণ।

আমাদের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি সব সময় মোদীজি এবং বিজেপির বিরোধীতা করেন। এর জন্য ফল ভোগ করতে হচ্ছে রাজ্যবাসীকে। তিনি শুধু মোদী বিরোধিতাই করেন না সেই সাথে কেন্দ্রের অনেক জনকল্যাণমুখী প্রকল্পেরও বিরোধিতা করেন। যার জন্য বারবার সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে করা কেন্দ্রের ভালো ভালো প্রকল্প গুলি থেকে এই রাজ্যের মানুষ কে বঞ্চিত হতে হচ্ছে। অনেক সুযোগ সুবিধা দিয়েছে কেন্দ্র সরকার সেই সকল সুবিধা ভোগ করছে অন্য রাজ্যের মানুষ। তারা সেই সুযোগ গুলি পেয়ে অনেক লাভবান হয়েছেন। কিন্তু বঞ্চিত হয়েছে এরাজ্যের মানুষ, কারন আমাদের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি শুধুমাত্র মোদী বিরোধিতা করতে গিয়ে ফিরিয়ে দেন কেন্দ্রের প্রস্তাব যার ফল ভোগ করতে হয় রাজ্যের সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষজনদের।

এবারও আবার একইভাবে রাজ্যের মানুষের কথা না ভেবে এমনকিছুই করার কথা ছিল। প্রধানমন্ত্রী স্বপ্নের “আয়ূষ্মান ভারত” প্রকল্প যখন সব রাজ্যের শুরু করার কথা ঠিক হয় সেই সময় একমাত্র আমাদের রাজ্যই এটা অস্বিকার করেন। তারা বলেন যে, আমাদের রাজ্যে এই প্রকল্প চালু হবে না। তার কারন হিসাবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বলেন যে আমাদের রাজ্যে এই রকম প্রকল্প চালু রয়েছে। তাই আর নুতন করে কিছুর দরকার নেই।

তবে বিশেষোজ্ঞরা স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দেন যে, এই সব শুধুমাত্র মুখ্যমন্ত্রীর কথার কথা। মুখ্যমন্ত্রীর আসল ভয় অন্য জায়গায়। তারা মনে করছেন যে, এত ভালো একটা কেন্দ্রীয় প্রকল্প যদি আমাদের রাজ্যে চালু হয়ে যায় তাহলে রাজ্যে বিজেপির সমর্থনে জনমত বেড়ে যাবে যার ফল পড়তে পারে ভোটে। রাজ্যের মানুষ বিজেপিকে ভোট দিয়ে দিতে পারে এমনই ভয় ছিল মুখ্যমন্ত্রীর মনের ভিতর। ফলে নির্বাচনে সমস্যায় পড়তে পারেন শাসক দল।
তাই বলে কি শুধুমাত্র ভোটের লোভে এত ভালো একটা প্রকল্প থেকে রাজ্যবাসী বঞ্চিত হবেন?

এখন এক নিউজ পোর্টালের থেকে জানা গিয়েছে শেষ অব্দি রাজ্য সরকার তাদের ভোল বদল করল। রাজ্য সরকার শেষ অব্দি কেন্দ্রের চাপের কাছে মাথা নত করতে বাধ্য হল। কেন্দ্রের চাপের ফলে এই রাজ্যে চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আয়ূষ্মান ভারত বা প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা প্রকল্প। প্রধানমন্ত্রী ২৩ শে সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিক ভাবে এই প্রকল্প উদ্ধোধন করলেও ২৫ শে সেপ্টেম্বর কয়েকটি রাজ্যে চালু হয়ে গিয়েছে এই সুবিধা।

এখনই কি শুরু হচ্ছে না পশ্চিমবঙ্গে?
জানা গিয়েছে যে এই মুহুতে এই রাজ্যে এই প্রকল্প চালু হচ্ছে না। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের এবং রাজ্য সরকারের মধ্যে এখন এই নিয়ে সেরকম কোনো বিল সাক্ষরিত না হওয়ায় ফলে শুরু করতে পারছে না এই রাজ্যে। কিন্তু কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে যে, খুব তাড়াতাড়ি চালু হয়ে যাবে এই রাজ্যে এই প্রকল্প। শোনা যাচ্ছে রাজ্য সরকার বিজেপির অবদান ঢাকার জন্য এই প্রকল্প আমাদের রাজ্যে অন্য নাম দিয়ে শুরু করতে পারে।

আসলে এই প্রকল্প কি?
এটি প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের একটি প্রকল্প। দেশের সেই সমস্ত পরিবার গুলি এই প্রকল্পের মধ্যে দিয়ে সুবিধা পাবে যাদের কোনো বড়ো কিছু রোগ হলে সেই রোগের চিকিৎসায় ব্যাহত খরচ বহন করার মত ক্ষমতা নেই। বাৎসরিক ৫ লক্ষ টাকা করে দেশের মোট ১০ লক্ষ পরিবারকে এই প্রকল্পভুক্ত করা হয়েছে। তারা তাদের চিকিৎসা ক্ষেত্রে এই টাকাটি খরচ করতে পারবেন তবে পুরোটাই ক্যাশলেস প্রক্রিয়া হবে। সরকার চিকিৎসা ক্ষেত্রে যত বিল হবে সেই সমস্ত টাকা সরাসরি হাসপাতালে দিয়ে দেবে। এমনকি এই স্বাস্থ্যের জন্য যাতায়াতের খরচও দেবে এই প্রকল্প।
#অগ্নিপুত্র