Press "Enter" to skip to content

বড় খবর: সিভিক শিক্ষকের পর এবার সিভিক গোয়েন্দা নিজুক্ত করতে চলেছেন মমতা ব্যানার্জী!

ট্র্যাফিক কন্ট্রোল, থানা সামলানো, হাসপাতাল সামলানো সবই করে ব্যানার্জীর ( Banerjee) সিভিক ভলান্টিয়ার। বাকি ছিল সিভিক বিভাগ, এবার সেটাও পূরণ করতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী( )। রাজ্য সরকার থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয়েছে যে, রাজ্যের গোয়েন্দা বিভাগে ৫,২৮৫ জন সিভিক ভলান্টিয়ারকে নিযুক্ত করা হবে। তবে নতুন করে সিভিক নিচ্ছে না রাজ্য। রাজ্যের সিভিক পুরাতন সিভিক ভলান্টিয়ারদেরই গোয়েন্দা বিভাগে নিযুক্ত করা হবে।

মমতা ব্যানার্জী ক্ষমতায় আসার দুই বছর পর রাজ্যে বেকারদের চাকরি দেওয়ার জন্য সিভিক পুলিশ সিস্টেম চালু করে সরকার। যদিও পরে সিভিকদের থেকে ‘পুলিশ” তকমা ঘুচিয়ে ‘ভলান্টিয়ার” তকমা দেওয়া হয়। ২০১৩ থেকে এখনো পর্যন্ত রাজ্যে ১ লক্ষ ২৫ হাজার ১০০ সিভিক ভলান্টিয়ার কর্মরত অবস্থায় রয়েছেন। এদের মধ্যে থেকেই ৫,২৮৫ জন সিভিক ভলান্টিয়ারকে নিযুক্ত করা হবে গোয়েন্দা বিভাগে। বাকিরা যে যেখানে কর্তব্যরত অবস্থায় আছেন, সেখানেই থাকবেন।

সুত্র অনুযায়ী, রাজ্যে যেভাবে চারিদিকে গণ্ডগোল চলছে সেটা রুখতেই এই পন্থা অবলম্বন করা হচ্ছে। পুলিশের কাছে আগাম খবর না থাকার জন্য সব যায়গায় সময়মত পৌঁছান না যাওয়াতে, অনেকসময় ছোটখাট গোলমাল বড়সড় রুপ ধারন করছে। আর সেগুলো রুখতে সিভিক ভলান্টিয়াদের গোয়েন্দা বিভাগে নিজুক্তি।

ইতি মধ্যে এই নিয়ে রাজনৈতিক চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে। থেকে অভিযোগ করে বলা হয়েছে যে, এবছরেই রাজ্যে পুরসভার । আর সেই নির্বাচনে সিভিক দের ক্যাডার হিসেবে কাজে লাগিয়ে জেলায় জেলায় গোপন খবর আনতে চাইছে তৃণমূল। বিজেপি থেকে এটাও বলা হয়েছে যে, বিজেপিকে ভয় পেয়েই মমতা ব্যানার্জী এই পদক্ষেপ নিতে চলেছেন।