Press "Enter" to skip to content

অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের জন্য এই ব্যাক্তি এত টাকা দান করলো, জানলে আপনিও অবাক হবেন।

দারুন : ( ) নির্মাণের জন্য এক ব্যক্তি অনেক দান করলেন !

অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণের জন্য বিভিন্ন জায়গা থেকে আওয়াজ উঠতে শুরু হয়েছে। অন্যদিকে মোদী সরকার ও মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যানাথ ইশারা ইশারায় রামমন্দির নির্মাণের সংকেত দিয়ে দিয়েছেন। সরকার সাংসদে রাম মন্দির নির্মাণের বিল পাশ করাতে শুরু করে দিয়েছে। জানিয়ে দি, আগামী ২৫ শে নভেম্বর অযোধ্যায় ধৰ্মসভা হতে চলেছে। সন্ন্যাসীদের আবেদনে ডাকা এই ধৰ্মসভায় দেশের হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলিও অংশ নিতে চলেছে। যার মধ্যে বিশ্বহিন্দু পরিষদ ও বজরং দল সামিল রয়েছে। শুধু এই নয় শিবসেনা প্রমুখ উদ্ভব ঠাকুরও ২৫ শে নভেম্বর অযোধ্যায় উপস্থিত হবেন। এরমধ্যে প্রতাব গড়ের আন্তু থানা এলাকার এক বাসিন্দা রাম মন্দির নির্মাণের জন্য ১ কোটি টাকা দান করেছেন। প্রতাব গড়ের আন্তু থানা অঞ্চলে থাকা ওই ব্যক্তির নাম সিতারাম।

এই ব্যাক্তি ২০ বছর ধরে RSS জেলা সঞ্চালক পদ সামলে ছিলেন। সীতারাম একজন প্রোপার্টি ডিলার। বলা হচ্ছে এখন পর্যন্ত রাম মন্দির নির্মাণের জন্য যত দান হয়েছে তার মধ্যে এটা সবথেকে বেশি। ১ কোটি টাকা দানের পর এটা জেলা জুড়ে চর্চার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে বাবরি মসজিদের পক্ষকারী ইকবাল আনসারী বড়ো মন্তব্য করেছেন।

ইকবাল আনসারী বলেছেন যদি সরকার রাম মন্দিরের জন্য আইন তৈরি করে তাহালে সেটা অবশ্যই করুক। আমরা আইন পালন করার পক্ষে থাকবো। উনি বলেন দেশে মন্দির মসজিদ রাজনীতি বন্ধ হওয়া উচিত। এর আগেও সীতারাম নিজের তিন বিঘা জমি স্বরসতী শিশু মন্দিরকে দান করে দিয়েছেন।

উনি বলেন যে টুকু সম্পত্তি আছে তার পুরোটাই ভগবান শ্রী রামের আশীর্বাদে। তাই জমি বিক্রি করে ১ কোটি টাকা ভগবান শ্রী রামের নামে দান করলাম। উনি দাবি জানিয়ে বলেন এবার ভগবান শ্রী রামী মন্দির অবশ্যই হয়ে যাবে।