Press "Enter" to skip to content

নির্বাচনের ঘোষণা হতেই শুরু হয়ে গেলো তৃণমূলের সন্ত্রাস! ২২টা গুলি খেয়ে তৃণমূলের দুষ্কৃতীর হাতে প্রাণ হারাল …

গতকালই নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন। আর তারিখ ঘোষণা হওয়ার পরেই শুরু হল ের । মঙ্গলবার সকাল থেকে উত্তেজনা সৃষ্টি হয় দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার লক্ষ্মীপুরে। সোমবার লক্ষ্মীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে ডাঙ্গাপাড়া কংগ্রেস ও কংগ্রেসের সংঘর্ষে শাহীদ আলম আর মহম্মদ হাসিবুল নামের দুই কংগ্রেস কর্মী।

আহতদের প্রথমে স্থানীয় স্বাস্থ কেন্দ্রে ভর্তি করানো হয়, পরে অবস্থার অবনতি হলে তাঁদের উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে সোমবার রাতেই কংগ্রেস কর্মী শাহীদ আলমের মৃত্যু হয়।

সূত্র অনুযায়ী অস্ত্রপ্রচারের সময় শাহীদ এর শরীর থেকে ২২ টি গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। শাহীদের মৃত্যুর পেয়েই মঙ্গলবার নতুন করে উত্তেজনার সৃষ্টি হয় এলাকায়। ক্ষুব্ধ কংগ্রেস কর্মীরা তৃণমূলের পার্টি অফিস জ্বালিয়ে দেয় বলে অভিযোগ করে তৃণমূল।

ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা হওয়ার পরেই ফের শুরু হয়ে গেলো তৃণমূলের সন্ত্রাস। গতবারের পঞ্চায়েত ভোটে এবাংলায় বহু মায়ের কোল খালি হয়েছে তৃণমূলের সন্ত্রাসে। বিরোধীদের মহিলা প্রার্থীদের ও ছারেনি তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা। একদিকে মনোনয়ন জমা দিতে বাঁধা, আবার ভোট কেন্দ্রে ভোট লুঠ। সর্বশেষে গণনা কেন্দ্রেও অবাধে ছাপ্পা।

রাজ্যে তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পর থেকেই দিনদিন পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে এরাজ্যের। রোজই কোথাও না কোথাও তৃণমূলের সন্ত্রাসের বলি হচ্ছে কেউ না কেউ। আর এরপরেও তৃণমূল সুপ্রিমো বলছেন এরাজ্যের মত আইনশৃঙ্খলা গোটা বিশ্বে নেই। এমনকি শুধু এরাজ্যেই নাকি গণতন্ত্র আছে, আর কোথাও নেই!

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.