Press "Enter" to skip to content

মান সম্মান হারালো পাকিস্থান! চীনে ভয়ানকভাবে অপমানিত হলেন পাকিস্থানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

ভারতে যখন থেকে নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় এসেছে তখন থেকে আন্তর্জাতিক স্তরে ের সন্মান ধুলোয় মিশে গেছে। তবে এটাও সত্য যে নিজেরদের অপমানিত কররা জন্য িরা নিজেরাই ওস্তাদ। সম্প্রতি ধার্মিক উন্মাদীদের দেশ থেকে একটা খবর সামনে আসছে যারপর ের বেঁচে থাকা সম্মানও খোয়াতে বসেছে কট্টরপন্থীরা। খবর ের ইসলামাবাদ থেকে আসছে যেখানে ের সরকারি টিভি চ্যানেলে বেজিং(Beijing) বানান বেগিং(Begging) বলে প্রকাশ করে দিয়েছিল। আর এরপর থেকেই ের উপর দিয়ে ঝড় বইতে শুরু করেছে। আসলে ইংরেজিতে বেগিং(Begging) শব্দের অর্থ ভিক্ষা করা। ের প্রধানমন্ত্রী ের এক কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন। যে সময় চীনে ভাষণ দিচ্ছিলেন সেই সময় পাকিস্থানের টিভি চ্যানেল বেজিং(Beijing) লেখার পরিবর্তে বেগিং(Begging) লেখা প্রকাশ করে দিয়েছিল। যার সোজাসুজি অর্থ পাকিস্থানের চীনে ভিক্ষা চাইতে গেছে।

পাকিস্থানের কিছুজন সেই মুহূর্তে টিভির ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেয় যা মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে পড়ে যাতে ইমরান খানের বেশ ভলোরকম সন্মান হানি হয়। এই ঘটনার পর পাকিস্থানের সরকার চ্যানেলের উপর তদন্ত শুরু করে দিয়েছে কারণ এই ঘটনার দরুন আন্তর্জাতিক স্তরে পাকিস্থানের সন্মান নষ্ট হয়েছে। টিভি চ্যানেলে লিখিতভাবে এই বিষয়ে পাক সরকারের কাছে ক্ষমা চেয়েছে এবং এই ভুলকে টাইপিং মিসটেক বলে দাবি করেছে।

পাকিস্থানের এই ঘটনা ভুলবশত হোক বা ইচ্ছাবশত এই ঘটনার মাধ্যমে পাকিস্থানে আসল ছবি সবার সামনে চলে এসেছে কারণ ইমরান খান, চীনে আর্থিক সাহায্য তথা ভিক্ষা(Begging) নিতেই পৌঁছেছিল। পাকিস্থান এই ঘটনাকে দাবিয়ে রাখার চেষ্টা করেছিল কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি ভাইরাল হওয়ায় এটাকে নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হয়ে যায়।

শুধু এই নয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পরেও পাকিস্থান তাদের সমস্থ স্থান থেকে চাপ দিয়ে ছবি সরিয়ে দিয়েছিল কিন্তু ততক্ষণে ছবি ভারতীয়দের হাতে চলে এসেছে। ভারতীয়রা টিভির ফুটেজ ও ছবি নিয়ে লাগাতার ট্রোল শুরু করে দেয় যা পাকিস্থানের নিয়ন্ত্রণে বাইরে ছিল। টিভিতে Begging শব্দটি ২০ সেকেন্ড পর্যন্ত ছিল। পাকিস্থানের সূচনা মন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী এই নিয়ে বড়োসড়ো তদন্ত এর ডাক দিয়েছেন।

প্রিয় পাঠকদের কাছে প্রশ্নঃ এই খবরের উপর আপনাদের প্রতিক্রিয়া জানান।