Press "Enter" to skip to content

ভারতীয় যুদ্ধ বিমানের ভয়ে এখনো তাঁদের বায়ুসীমা বন্ধ রেখেছে পাকিস্তান, জানালো পাক আধিকারিক

ভারতীয় বিমানের জন্য পাকিস্তান তাঁদের বায়ু সীমা খোলা নিয়ে পাকিস্তান ভারতের সামনে শর্ত রাখল পাকিস্তান। ইমরানের দেশ থেকে ভারতকে জানিয়ে দিয়েছে যে, পাকিস্তান ততদিন তাঁদের বায়ু সীমা খুলবে নে, যতদিন না ভারত তাঁদের এয়ারবেস থেকে যুদ্ধ বিমান সরাচ্ছে।

পাকিস্তানের বিমান সচিব শাহ্রুখ নুসরত একটি সংসদীয় সমিতিকে এই তথ্য দেন। উনি বলেন ভারত সরকার ওনার সাথে যোগাযোগ করে বায়ু সীমা খোলার জন্য আবেদন করেছে। উনি বলেন, আমি ভারতকে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছি যে, ভারত তাঁদের অগ্রিম এয়ারবেস থেকে যতদিন না তাঁদের যুদ্ধ বিমান সরাচ্ছে, ততদিন পাকিস্তানের বায়ু সীমা খোলা হবেনা।

নুসরত বলেন, আমরা ভারতীয় আধিকারিকদের জানিয়ে দিয়েছি যে, ভারতীয় বায়ুসেনার এয়ারবেসে এখনো যুদ্ধ বিমান মোতায়েন আছে। আর ওই যুদ্ধ বিমান গুলোকে ভারতীয় বায়ুসেনা যতদিন না এয়ারবেস থেকে সরাচ্ছে ততদিন ভারতকে পাকিস্তানের বায়ু সীমা ব্যাবহার করার জন্য অনুমতি দেওয়া হবেনা।

ভারতীয় বিমানের জন্য পাকিস্তান তাঁদের বায়ু সীমা বন্ধ করে নিজেরাই ক্ষতির সন্মুখিন হয়েছে। পাকিস্তানের এয়ারলাইন্স এই নিষেধাজ্ঞা জারি করার পর রোজ কোটি কোটি টাকার ক্ষতির মুখ দেখছে। পাকিস্তান ইন্টারন্যাশানাল এয়ারলাইন্স রোজ আটটি বিমান সঞ্চালিত করত, সেগুলোর মধ্যে দুটি ভারতের রাজধানী দিল্লী, দুটি ব্যাঙ্কক আর চারটি কুয়ালালামপুর যেত।

আপনাদের জানিয়ে রাখি ১৪ ই ফেব্রুয়ারি জম্মু কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলার পর ২৬ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় বায়ুসেনা পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বালাকোটে অবস্থিত জইশ-এ-মোহম্মদ এর জঙ্গি ঘাঁটিতে এয়ার স্ট্রাইক করে সেগুলো গুঁড়িয়ে দেয়। এরপর পাকিস্তান ২৬ ফেব্রুয়ারি তাঁদের বায়ু সীমা পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়। যদিও ২৭ ফেব্রুয়ারি তাঁদের সিদ্ধান্ত বদলে দিল্লী, ব্যাঙ্কক আর কুয়ালালামপুর বাদে বাকি দেশ গুলোর জন্য তাঁদের বায়ু সীমা খুলে দেয়।