in

চূড়ান্ত প্রত্যাঘাত সেনার, সীমান্তের ওপারে খতম করা হল এতজন পাক সেনাকে

মুখে শান্তির বার্তা আর থেকে থেকে যুদ্ধ বিরতি লঙ্ঘন করে বিশ্বের সামনে নিজেরাই নিজেদের মুখোশ খুলে দিয়েছে পাকিস্তান। গতকাল কাশ্মীরের রাজৌরি সেক্টরে পাকিস্তানের করা যুদ্ধ বিরতির ফলে একই পরিবারের ৩ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে।

ওই তিন সদস্যের মধ্যে একটি পাঁচ বছরের বাচ্চা ও একটি নয় মাসের শিশুও ছিল। এত কিছুর পরেও পাকিস্তান নিজেদের শান্তির দূত বলে প্রচার করছে। আর পাকিস্তানের সমর্থন করছে ভারতে বসে থাকা গাদা গাদা পাকিস্তান প্রেমী।

আরও পড়ুনঃ নিজের জেতা সর্বোচ্চ সন্মান অভিনন্দনকে উৎসর্গ করলেন কুস্তিবীর বজরং পুনিয়া

তাঁদের অনুসারে ইমরান খান শান্তি চায় তাই অভিনন্দনকে ছেড়ে দিয়েছে। কিন্তু নরেন্দ্র মোদী শান্তি চায়না। তাই যুদ্ধের উস্কানি দিয়ে চলেছে। ভারতে থাকা পাকিস্তান প্রেমীদের মতে বায়ুসেনা যে পাকিস্তানে ঢুকে এয়ার স্ট্রাইক করেছে সেটাও ভুয়ো।

আরও পড়ুনঃ অসমের এই গ্রামে ৫০০ বছর ধরে শিব মন্দিরের দেখাশোনা করে আসছে এক মুসলিম পরিবার

পাকিস্তানের সেনা আধিকারিক এবং জৈশ এ মহম্মদ এর জঙ্গি আজহার মাসুদ এর ভাই ও স্বীকার করছে পাকিস্তানে ঢুকে ভারতীয় বায়ুসেনা ধ্বংসলীলা চালিয়ে জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়ে গেছে। কিন্তু তাও ভারতে থাকে পাক প্রেমীরা সেটা মানতে নারাজ। তাঁদের এখনও প্রমাণ চাই।

আরও পড়ুনঃ মোদী সরকারের কাজের ভূয়সী প্রশংসা করেলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, এবার আরও চাপে পড়তে চলেছে রাহুল ব্রিগেড

আরেকদিকে পাকিস্তানি সেনা শনিবার নিয়ন্ত্রণ রেখার ওপারে ভারতীয় সেনার হামলায় দুজন পাক রেঞ্জার্স মারা যাওয়ার কথা স্বীকার করেছে। পাকিস্তান জেনায় ওই দুই রেঞ্জার্স এর মৃত্যু নিয়ন্ত্রণ রেখার নকিয়াল সেক্টরে হয়েছে।

 

নিজের জেতা সর্বোচ্চ সন্মান অভিনন্দনকে উৎসর্গ করলেন কুস্তিবীর বজরং পুনিয়া

আসল সময়ে ভারতের কাজে এল পরম মিত্র ইজরায়েল! ইজরায়েলী লেজার বোম দিয়ে করা হয়েছিল পাকিস্থানের উপর স্ট্রাইক।