Press "Enter" to skip to content

মাদ্রাসায় এত অস্ত্র কোথায় থেকে এবং কেন আসছে, এটা কেউ জিজ্ঞাসা করেনি: পায়েল রোহাতগি, অভিনেত্রী।

বিগত দিনে বিজনোরের মাদ্রাসা থেকে প্রচুর অবৈধ অস্ত্র পাওয়া গেছে। ওষুধের বাক্সের মধ্যে অস্ত্রগুলিকে লুকিয়ে রাখা হতো। এই ঘটনায় UP পুলিশ কিছুজনকে গ্রেফতারও করেছে। তবে এটা এই ধরনের প্রথম ঘটনা নয়, মাদ্রাসা ও মসজিদ থেকে প্রায় দিন অবৈধ অস্ত্র পাওয়ার খবর সামনে আসছে। কিন্তু এই মাদ্রাসাগুলিতে অস্ত্র আসছে কোথায় থেকে?  এই অস্ত্রগুলি কোন কাজের জন্য জমা করা হচ্ছে? এর উপর কারোর মনযোগ নেই। দেশের বিরুদ্ধে ভয়ংকর ষড়যন্ত্রের গন্ধকে অদেখা করা হচ্ছে। হয়তো বড়ো গৃহযুদ্ধ বা গজবা-এ-হিন্দের পস্তুতি নেওয়া হয়।

আর এর শিকার কারা হবে এটার আন্দাজ করা কোনো কঠিন ব্যাপার নয়। ISIS ও হটাৎ করে সামনে এসেছিল। প্রথমে মসজিদে ও মাদ্রাসায় অস্ত্র জমা করা হয়েছিল এবং তৎপর গৃহযুদ্ধ শুরু করে শহর দখলের খেলা শুরু হয়েছিল। এই রকম পরিস্থিতি ভারতের শহরগুলিতেও হতে বেশি সময় লাগবে না যদি বিপদকে অদেখা করা হয়। যে সব শহরগুলিতে উন্মাদী কট্টরপন্থীরা অধিক সংখ্যায় রয়েছে সেখানেই বড়ো ষড়যন্ত্রের একটা গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। কেন মাদ্রাসায় অস্ত্র পাওয়ার মতো ঘটনাকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না সেই নিয়ে বলিউড অভিনেত্রী পায়েল রোহাতগি প্রশ্ন তুলেছেন।

মাদ্রাসায় বিপুল সংখ্যক অস্ত্র পাওয়া নিয়ে মিডিয়া, নেতা, মন্ত্রী সমাজ কেও মুখ খুলতে রাজি নয়। যার উপর প্রশ্নঃ তুলেছেন পায়েল পায়েল রোহাতগি। আগত বিপদের থেকে মুখ লুকিয়ে কি বিপদ এড়ানো যাবে সেই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অভিনেত্রী পায়েল পায়েল রোহাতগি। যদি কোন হিন্দু সংগঠনের কাছে ছোট খাটো অস্ত্র পাওয়া যায় তাহলে সকলে একত্রিত হয়ে লেগে পড়ে অস্ত্রের পেছনে রহস্য জানার জন্য, হিন্দু সংগঠনকে ব্যান করার আওয়াজ তোলার জন্য। কিন্ত মাদ্রাসায় কোথায় থেকে অস্ত্র আসছে এবং এগুলোর কাজ কি, তা জিজ্ঞাসা করার মতো কেউ নেই।

you're currently offline