Press "Enter" to skip to content

ঝুপড়ি কাঁচা বাড়িতে থাকতেন বিজেপি বিধায়ক! চাঁদা তুলে সৎ নেতার বাড়ি বানিয়ে দিলো স্থানীয়রা।

নাম সীতারাম আদিবাসী, মধ্যপ্রদেশের শয়েপুর জেলার বিজয়পুর বিধানসভা সিট থেকে ইনি বিধায়ক। নিজের পরিবারের সাথে ইনি একটা ঝুপড়ি কাঁচা বাড়িতে বাস করেন। স্থানীয় লোকেরা চান না যে তাদের বিধায়ক কাঁচা বাড়িতে ওইভাবে বসবাস করুক। তাই পারস্পরিক সহযোগিতায় টাকা সংগ্রহ করে উনার জন্য বাড়ি নির্মাণ করছেন স্থানীয় মানুষজন। বিষয়টি আশ্চর্যজনক মনে হলেও এটাই সত্য। সীতারাম অধিবাসী পরিবারের সাথে একটা ঝোপরি কাঁচা বাড়িতে থাকেন। সীতারাম বিজেপির পার্টির নিষ্ঠাবান সদস্য এবং একজন বিধায়ক। স্মরণ করিয়ে দি, সীতারাম সেই পার্টির বিধায়ক যারা মধ্যপ্রদেশে লাগাতার ১৫ বছর ধরে রাজত্ব করেছে।

আজকের দিনে ভারতের রাজনৈতিক দলগুলি এতটাই দুর্নীতিগ্রস্থ যে বিধায়ক তো দূর একটা ছোটোখাটো নেতা হলেও ৭ পুরুষ ধরে খাওয়ার মতো সম্পত্তি বানিয়ে নেয়। সেই স্থানে দাঁড়িয়ে বিজেপির মধ্যে এমন এমন নেতা রয়েছে যারা শুধুমাত্র দেশের সেবা করার জন্য রাজনীতিতে নেমেছে।  বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি নেতা সীতারাম, কংগ্রেসের দাপুটে নেতা রাম নিবাসকে হারিয়ে বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন।

উনি লাগাতার দুটি নির্বাচন লড়েছেন এবং এই নিয়ে তৃতীয় নির্বাচন। সীতারামের জীবন শৈলী খুবই সাধারণ এবং সামান্য। এই মরসুমে উনি সন্ধ্যে বেলা নিজের খাটিয়াতে বসে আগুন পোয়ান তো আবার সকাল বেলা একটা সাল উড়ে নিজের এলাকা পরিদর্শন ও সংগঠনের কাজে বেরিয়ে পড়েন। সীতারামের এই জীবনশৈলী এলাকার মানুষদের খুবই প্রভাবিত করেছে।

সীতারাম কেন ঝুপড়ি বাড়িতে থাকেন এটা জিজ্ঞাসা করা হলে উনি বলেন যে তার কাছে টাকা পয়সা নেই। স্থানীয় মানুষজন সীতারামের খুবই প্রশংসা করেন কারণ উনি দুর্নীতিগ্রস্থ নেতা নন। সিতারামের একজন বড় সমর্থক ধনরাজ বলেছেন আমাদের খুব খারাপ লাগে যে উনি ঝুপড়ি কাঁচা বাড়িতে কষ্ট করে থাকেন তাই আমরা সকলে মিলে উনার জন্য পাকা বাড়ি তৈরি করার যোজনা করেছি। সীতারাম কারহাল বিকাশখণ্ডের পিপরালা গ্রামের বাসিন্দা। উনি নিজে জানিয়েছেন যে উনার জন্য পাকা বাড়ি তৈরি করতে স্থানীয় মানুষজন নেমে পড়েছে। লোকজন ৫০০-১০০০ করে টাকা করে প্রদান করেছে অনেকে খুচরো টাকাও প্রদান করেছে। সেই টাকা দিয়ে নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়েছে।

স্থানীয় লোকজন বলেছেন যে সীতারাম এমন নেতা যিনি  সবার জন্য নিজেকে সমর্পণ করে দেন। সকলের বিপদে আপদে উনি পাশে এসে দাঁড়ান এবং যথাসম্ভব সাহায্যের চেষ্টা করেন। এই বিশেষ কারণেই জন্যেই স্থানীয় লোকজন উনাকে এতটা বেশি ভালোবাসেন। সীতারামের পত্নী বলেছেন যে স্থানীয়রা এইভাবে তাদের হয়ে বাড়ি নির্মাণে এগিয়ে আসবে এটা উনি কল্পনাও করতে পারেনি।

11 Comments

  1. Hey check out high line pointe, run by adeline bababikov: 1291 South Ulster street, denver co 80231 manager@highlinepointe phone: 720-513-3865

Leave a Reply

Your email address will not be published.