Press "Enter" to skip to content

মহারাষ্ট্রে শিবসেনা-কংগ্রেস আর NCP জোটের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে দাখিল হল মামলা, বিপাকে জোট

নয়া দিল্লীঃ মহারাষ্ট্রে () শিবসেনা (Shiv Sena), কংগ্রেস () আর রাষ্ট্রবাদী কংগ্রেস ()  নির্বাচনের পর জোট করে ক্ষমতা হাসিল করতে চেয়েছে। জনতার সাথে এভাবে বিশ্বাসঘাতকতা  করার জন্য সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court) একটি আবেদন দাখিল হয়েছে। আবেদনে বলা হয়েছে যে, শিবসেনার মত বদল ভোটার দ্বারা NDA জোটের উপর করা ভরসার সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করা হয়েছে। এই আবেদন অভিযোগ করে বলা হয়েছে যে, বিজেপির সাথে জোট করে নির্বাচনে লড়া শিবসেনার মত বদলের মানে হল মহারাষ্ট্রের জনতার ভরসার সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করা।

রাজ্যপাল ভগত সিং কোশিয়ারি দ্বারা কেন্দ্রে রিপোর্ট পাঠানোর পর মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হয়েছিল। রাষ্ট্রপতি রিপোর্টে জানিয়েছিলেন যে, ওনার তরফ থেকে সব প্রচেষ্টা করার পরেও রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতিতে স্থায়ী সরকার গঠন প্রায় অসম্ভব।

প্রমোদ পণ্ডিত জোশির তরফ থেকে সুপ্রিম কোর্টে এই আবেদন দাখিল করে কেন্দ্র আর রাজ্যকে শিবসেনা, এনসিপি আর কংগ্রেসের তরফ থেকে নির্ধারিত মুখ্যমন্ত্রী নিযুক্ত করা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়ার দাবি করা হয়। আরেকদিকে বরুন কুমার সিনহা দ্বারা দায়ের করা একটি আবেদনে বলা হয় যে, ‘শিবসেনা, এনসিপি আর কংগ্রেসের এই কাজ সম্পূর্ণ অনৈতিক এবং সরকার গঠনের দাবি সাংবিধানিক যোজনার বিরোধী।

এর সাথে সাথে বৃহস্পতিবার জানা গেছে যে, কংগ্রেস সভাপতি সনিয়া গান্ধী আর রাষ্ট্রবাদী কংগ্রেসের প্রধান শরদ পাওয়ার ১৭ নভেম্বর দিল্লীতে সাক্ষাৎ করে মহারাষ্ট্রে সরকার বানানো নিয়ে শিবসেনার সাথে জোট নিয়ে চর্চা করতে পারেন। সুত্র অনুযায়ী, কংগ্রেস আর এনসিপি শিবসেনার সাথে নুন্যতম অংশিদারিত্ব নিয়ে কাজ করবে। আর এই নিয়ে সনিয়া গান্ধী এবং শরদ পাওয়ার বৈঠকে চর্চা করবেন।