Press "Enter" to skip to content

বড় খবরঃ দুই টাকারও উপরে কমলো তেলের দাম, মুখে কুলুপ বিরোধীদের!

আন্তর্জাতিক বাজারে কাঁচা তেলের দাম বৃদ্ধি পেলেও বৃহস্পতিবার দেশে তেলের দাম কমলো। চার দিন পর ডিজেলের দামে ৬ পয়সা প্রতি লিটার পতন দেখা গেলো। বৃহস্পতিবার দেশের রাজধানী দিল্লীতে পেট্রোলের দাম ৬৯.৯৩ টাকা প্রতি লিটার আর ডিজেলের দাম ৬৩.৭৮ টাকা প্রতি লিটার হয়েছে।

বৃহস্পতিবার মুম্বাইয়ে পেট্রোল ৭৫.৬৩ টাকা আর ডিজেল ৬৬.৭৮ টাকা। কলকাতায় পেট্রোল ৭২.১৯ টাকা আর ডিজেল ৬৫.৭০ টাকা। চেন্নাইতে পেট্রোল ৭২.৬৫ টাকা, আর ডিজেল ৬৭.৪৭ টাকা। নয়ডা তে পেট্রোল ৭০.৪৫, ডিজেল ৬৩.৯১। গুরুগ্রামে পেট্রোল ৭০.৩৬, আর ডিজেল ৬৩.২৭ টাকা প্রতি লিটার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

আমেরিকা আর চীনের মধ্যে চলা ট্রেড ওয়ারের সমস্যা সমাধান হওয়ার সঙ্কেত দেখার পরেই আন্তর্জাতিক বাজারে কাঁচা তেলের দাম একটু একটু করে বৃদ্ধি পাচ্ছে। কারণ ট্রেড ওয়ার শেষ হলেই আন্তর্জাতিক বাজারে কাঁচা তেলের ডিমান্ড বেড়ে যাবে।

আরেকদিকে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচন চলার সময় কংগ্রেসের তরফ থেকে একটি বিবৃতি জারি করা হয়েছিল। প্রথম তিন দফার ভোট সম্পন্ন হওয়ার পরেই কংগ্রেসের তরফ থেকে বলা হয়েছিল যে, শেষ দফার ভোটের দিনেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তেলের দাম বাড়িয়ে আকাশ ছোঁয়া করে দেবেন।

কংগ্রেসের সেই অভিযোগ সত্য প্রমাণিত না হয়ে, উলটে লোকসভা ভোটের পর দেশের তেলের দাম অস্বাভাবিক ভাবে কমে গেছে। লোকসভা ভোটের পর এখনো পর্যন্ত দেশে ডিজেলের ডাম ২ টাকারও বেশি কমেছে। আর পেট্রোলের দাম ১ টাকার উপরে কমেছে। ২০১৪ সালে ভোটের সময় দেশে তেলের দাম যা ছিল। ৫ বছর পর দেশের তেলের দাম তাঁর থেকেও কম রয়েছে। নরেন্দ্র মোদীর শাসন কালে কিছুদিনের জন্য দেশের তেলের দাম রেকর্ড হারে বেড়ে গেলেও, কংগ্রেস শাসন কালের থেকে অনেক কম দামেই বিক্রি হয়েছে তেল।