Press "Enter" to skip to content

ভারতের ঐতিহাসিক সাফল্য ! প্রধানমন্ত্রী মোদীকে ফোন করে ওয়ার্ল্ড ব্যাঙ্ক প্রমুখ বললেন..

সম্প্রতি ের ব্যাবসায়িক সুবিধার্থ রাঙ্কিং ইজ অফ ডুইং বিজনেসে ভারত বড়োসড়ো লাফ দিয়েছে। ভারতের এই উপলব্ধিকে বিশ্বব্যাংকের চেয়ারম্যান জিম ইয়ং কিম ঐতিহাসিক বলে সাফল্য বলে দাবি করেছেন। কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী কিম নরেন্দ্র মোদীকে ফোন করে এই সাফল্যের জন্য অভিনন্দন জানিয়েছেন। ভারতের এই বড়ো সাফল্যের জন্য কিম ১২৫ কোটি ভারতীয়র প্রতিনিধি মোদীকে ের চেয়ারম্যান বাহবা জানিয়েছেন। মাত্র ৪ বছরের মধ্যে ৬৫ স্থান উপরে উঠে যাওয়া এই প্রথম দেশ ভারত। দক্ষিণ এশিয়ার কোনো দেশ আগে এত দ্রুতগতিতে স্থান উপরে উঠিয়ে নিয়ে জেটর পারেনি। ইজ অফ ডুইং বিজনেসে ভারত ১৪২ তম স্থান থেকে উঠে ৭৭ তম স্থানে এসেছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে এই উপলব্ধি ভারতকে আরো বেশি নিবেশ টানতে সাহায্য করবে। ২০১৩ সালে ভারত এই ইনডেক্স রাঙ্ক এ ১৪২ স্থানে ছিল, ২০১৭ যে ভারত ১০০ স্থানে উঠে এসেছিল এবং ২০১৮ এর শেষে ৭৭ তম স্থানে এসেছে। সবথেকে দ্রুতগতিতে রাঙ্ক পরিবর্তন এর তালিকার টপ লিস্টে ভারত রয়েছে। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলিতে ভারতের স্থান প্রথম রয়েছে। বিদেশী অর্থশাস্ত্রীদের মতে এইভাবে চলতে থাকলে ভারত খুব শীঘ্রই চীনকে পিছিয়ে দেবে।

কারণ এই দেশ প্রতি বছর ১৭ টি করে দেশকে অতিক্রম করছে। তবে ভারতের কংগ্রেস ঘনিষ্ট অর্থশাস্ত্রীদের দাবি এই সমস্থকিছু মনমোহন সরকারের করে যাওয়া কাজের ফল। ২০১৯ থেকে ভারতের উপরে উঠা বন্ধ হয়ে যাবে বলে দাবি কংগ্রেসের ঘনিষ্ট অর্থশাস্ত্রীরা। জানিয়ে দি চীন এখন রাঙ্ক এ ৪৬ তম স্থানে রয়েছে এবং ভারত ৭৭ তম স্থানে রয়েছে। তাই মোদী সরকারের কাছে একটা বড়ো সুযোগ রয়েছে চীনকে অতিক্রম করে যাওয়ার। আসলে যেহেতু চীন এশিয়া মহাদেশে ভারতের একটা বড়ো প্রতিদ্বন্দি তাই এক্ষেত্রে চীনকে অতিক্রম করা ভারতের জন্য একটা বড়ো সাফল্য হবে।

উল্লেখ্য, ১৯০ টি দেশের তালিকার শ্রেণীতে ইসলামিক দেশ পাকিস্থান ১৩৬ তো স্থানে রয়েছে। তবে এখন পাকিস্থানের অবস্থার যে হারে অবনতি হচ্ছে তাতে পদের আরো উন্নতি করা তো দূর আরো পিছিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। কারণ পাকিস্থানের কাছে এখন মুদ্রাভান্ডার শেষ হওয়ার মুখে কোনোভাবেই দাঁড়াবার অবস্থায় নেই। এখন একমাত্র বাইরে থেকে আর্থিক সাহায্য পাকিস্থানকে রক্ষা করতে পারবে।