Press "Enter" to skip to content

PM CARES এর টাকায় বাংলায় ২৫০ শয্যার দুটি কোভিড হাসপাতাল তৈরি করছে DRDO


কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরীর (Adhir Ranjan Chowdhury) কথা রাখলেন (narendra mdoi)। বহরমপুর (berhampore) এবং কল্যাণীতে গড়ে উঠতে চলেছে ৫০০ বেডের কোভিড । অধীর চৌধুরীর কথামতই কাজের বরাত দেওয়া হয়েছে প্রতিরক্ষা গবেষণা প্রতিষ্ঠান ডিআরডিওকে।

মুশির্দাবাদে সরকারি হাসপাতালের পরিষেবা নিয়ে অভিযোগে সরব হয়েছিল স্থানীয়রা। অভিযোগ উঠেছিল, সেখানে রোগীরা নিজেরাই ন্যাসাল সোয়াব দিয়ে নিজেদের নমুনা নিচ্ছেন। হাসপাতালের দিকে অভিযোগ ওঠায়, প্রধানমন্ত্রীকে এক চিঠি লিখেছিলেন । চিঠিতে অনুরোধ জানিয়েছিলেন, ডিআরডিওকে দিয়ে মুশির্দাবাদে একটি করোনা হাসপাতাল তৈরি করানো হোক।

শুধু তাই নয়, ডিরেক্টর নির্বাচনের দিন প্রধানমন্ত্রী মোদীর বাসভবনে গিয়ে তাঁর সঙ্গে একান্ত সাক্ষাতে অধীর চৌধুরী জানিয়েছিলেন, বহরমপুরে ৫০০ বেডের করোনা হাসপাতাল তৈরি করানো হোক ডিআরডিওকে দিয়ে। অধীর চৌধুরীর আবেদনে সাড়া দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ৫০০ নয়, ১০০০ বেডের করোনা হাসপাতাল তৈরি করা হবে বহরমপুরে।

সেই কথা রাখলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। গ্রুপ ক্যাপ্টেনের নেতৃত্ব পরবর্তীতে একটি প্রতিনিধি দল পৌঁছায় বহরমপুরে। সেখানকার প্রশাসন জানায়, ১০০০ বেডের হাসপাতাল তৈরি করার মত জায়গা সেখানে নেই। ২৫০ বেডের হাসপাতাল তৈরি করা যেতে পারে।

সেইমত ডিআরডিও সিদ্ধান্ত নেয়, ২৫০ বেডের হাসপাতাল তৈরি করা হবে বহরমপুরে এবং বাকি ২৫০ বেডের হাসপাতাল তৈরি করা হবে কল্যাণীতে। সিদ্ধান্ত মাফিক কাজও শুরু করে দিয়েছে ডিআরডিও। যার ফলে এলাকার অসংখ্য মানুষ পরিষেবা পাবেন। সঠিক চিকিৎসা প্রয়োগে সুস্থ হতে পারবেন খুব দ্রুতই।