Press "Enter" to skip to content

মোদী করেছিলেন এমন এক প্রশ্ন, যে জবাব দিতে পারলেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী !

ক্ষমতায় আসার জন্য আবার মুসলিমদের ভোট ব্যাংক বানানোর চেষ্টা করছে কংগ্রেস। কংগ্রেস থেকে জানান হয়েছে যে, তাঁরা ক্ষমতায় আসলেই দেশ থেকে তিন তালাক বিরোধী আইন তুলে দেওয়া হবে। গত বৃহস্পতিবার কংগ্রেসের সাংসদ সুস্মিতা দেব মাইনরিটি সেলের একটি সন্মেলনে গিয়ে ক্ষমতায় আসা মাত্রই তিন তালাক আইন তুলে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। এমনকি শুধু তিনিই না, কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধীও ওনার সূরে সূর মিলিয়ে তিন তালাক বিরোধী আইন তুলে দেওয়ার কথা বলেন।

কংগ্রেস সাংসদ সুস্মিতা দেব

কংগ্রেস নেত্রী সুস্মিতা দেব এর মতে, মুসলিম মহিলা এবং পুরুষদের মধ্যে বিবাদ সৃষ্টি করার জন্য এই আইন এনেছে বিজেপি। আর তার ক্ষমতায় এলেই এই আইন তুলে দেবে। কংগ্রেসের এই ঘোষণার পরেই পতিক্রিয়া দিতে দেরি করেনি বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

বিজেপির তরফ থেকে বলা হয়েছে, শুধু মাত্র ভোট ব্যাংকের খাতিরে মুসলিম মহিলাদের স্বার্থ জলাঞ্জলি দিচ্ছে কংগ্রেস। বিজেপির তরফ থেকে এটিকে কংগ্রেসের তোষণমূলক রাজনীতি বলে আখ্যা দেওয়া হয়েছে। আবার কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা সাফাই দিয়ে বলেছেন, ‘ এই আইনের ফলে স্বামী জেলে গেলে পরিবারকে দেখবে কে?” কিন্তু কথা হল, তালাক দেওয়ার পর সে স্বামীই বা থাকবে কি করে? আর তালাকের পর মহিলার পরিস্থিতিই বা কি হবে? আর সবথেকে বড় ব্যাপার। তালাক যদি নিষিদ্ধই হয়, তাহলে আইনের অবমাননা করে তালাক কেন দেওয়া হবে?

সুরজেওয়ালা

গতকাল ময়নাগুড়ির জনসভা থেকে তিন তালাক বিরোধী আইন তুলে দেওয়ার ঘোষণা করার পর কংগ্রেসকে চরম আক্রমণ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, দেশের লক্ষ লক্ষ মুসলিম মা বোনেদের বিশ্বাস ভঙ্গ করছে কংগ্রেস। কংগ্রেস এই ঘোষণা করে বুঝিয়ে দিলো যে, তাঁরা সুপ্রিম কোর্ট মানেনা।

তিন তালাক নিয়ে মমতা ব্যানার্জীকে প্রশ্ন করে নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘ পশ্চিমবঙ্গের অনেক মা বোনেরাই বহুদিন ধরে তিন তালাকের নির্যাতনের শিকার হয়েছে। আমি আপনাকে প্রশ্ন করে বলছি, আপনি একজন মহিলা হয়েও এই আইনের বিরোধিতা করছেন কিভাবে? আপনার কাছে ভোটের দাম বেশি, না মুসলিম মা বোনেদের? আমরা তিন তালাক আইন হঠাতে দেবো না”

নরেন্দ্র মোদীর এই প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। তিনি এই বিষয়ে কোন মন্তব্য করবেন না বলে জানিয়ে দেন। তিনি এই ব্যাপারটি দলীয় নেতৃত্ব এবং সাংসদীয় দলের উপর ছেড়ে দেন। তবে তিনি বলেন যে, তিনি মহিলাদের পক্ষে। আর পদ্ধতির মাধ্যমে সব জিনিষ করতে হয়।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.