Press "Enter" to skip to content

বড় খবর: কংগ্রেস সহ বিরোধীদের বড়সড় ঝটকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী! প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জীকে দিতে চলেছেন সর্বোচ্চ সম্মান।

প্রজাতন্ত্র দিবসের আগের দিনই বড় সামনে এসে চমকে দিল পুরো দেশকে। অনুযায়ী দেশের প্রাক্তণ রাষ্ট্রপতি ভারতরত্ন হিসেবে পুরস্কিত হতে চলেছেন। ২৫ তারিখ অর্থাৎ প্রজাতন্ত্র দিবসের ঠিক আগের দিন এই ঘোষণা করা হয় রাষ্ট্রপতি ভবনে। প্রণব মুখার্জীকে ভারতরত্ন দেওয়া নিয়ে দেশজুড়ে ব্যাপক উৎসাহ সৃষ্টি হয়েছে। এই ঘোষণার পর দেশের মোদী, প্রণব মুখার্জীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন এবং দেশের প্রতি উনার অবদানের জন্য প্রশংসা করেছেন। প্ৰধানমন্ত্রী বলেছেন, প্রণব বাবু দশক ধরে তার জ্ঞান ও দূরদর্শীতা দিয়ে দেশের জনগণের সেবা করেছেন। দেশের উন্নয়নে উনার(প্রণব মুখার্জী) অবদানের জন্য মন খুলে প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

নানাজি দেশমুখ, ডক্টর ভূপেন হাজারিকা ও প্রণব মুখার্জীকে ভারতরত্ন পুরস্কার দেওয়া হবে। কেন্দ্র সরকারের এই সিধান্ত নিয়ে এখন দেশজুড়ে রাজনৈতিক মহলেও চর্চা শুরু হয়েছে। ভারত রত্ন এর লিস্টে প্রণব মুখার্জীর নাম নিয়ে সবথেকে বেশি চর্চা শুরু হয়েছে। এর কারণ প্রণব মুখার্জী একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এবং গান্ধী পরিবারের চাপে থাকা সত্ত্বেও উনি দেশের জন্য নিজের সমস্থ শক্তি লাগিয়ে কাজ চালিয়ে গেছিলেন।

কেন্দ্র সরকার প্রণব মুখার্জীকে ভারতরত্ন পুরষ্কার দেওয়ার যে সিধান্ত নিয়েছে তা নিয়ে আগত দিনে রাজনৈতিক বিতর্কও শুরু হতে পারে। কারণ প্রণব মুখার্জীর নামের সাথে বহু বিষয় জুড়ে রয়েছে। প্রণব মুখার্জী একজন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি হওয়ার সাথে সাথে কংগ্রেসের নেতাও ছিলেন। কংগ্রেস পার্টির প্রতি প্রবন মুখার্জীর অবদান এত বড় ছিল যে উনি প্রধানমন্ত্রী পদের বড় দাবিদার ছিলেন। যদিও গান্ধী পরিবারের ষড়যন্ত্র এর কারণে উনাকে অগ্রাহ্য করা হয়।

প্রণব মুখার্জী সেই ব্যক্তিত্ব যিনি গান্ধী পরিবারে পরিবারবাদ রাজনীতি এবং সোনিয়া গান্ধীর হিন্দু বিরোধী নীতির সমালোচনা করেছিলেন। এমত অবস্থায় দাঁড়িয়ে প্রণব মুখার্জীকে ভারতরত্ন পুরস্কার দেওয়া চমকে দেওয়ার মত সিদ্ধান্ত বলে মনে করা হচ্ছে।

6 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.