Press "Enter" to skip to content

আতঙ্কবাদীদের সমর্থনে নামলেন উকিল প্রশান্ত ভূষণ! isis আতঙ্কবাদীদের ‘নিরীহ মুসলিম’ আখ্যা দিলেন এই বুদ্ধিজীবী।

দেশের বড় উকিল ও বুদ্ধিজীবী ের সাথে আতঙ্কবাদীদের কি সম্পর্ক রয়েছে সেটা একমাত্র তদন্তের পরেই বলা সম্ভব। কিন্তু বিগত কিছুদিনে ের কার্যে এটা নিশ্চিত হওয়া গেছে যে তিনি আতঙ্কবাদীদের একজন বড় সমর্থক। কোনো তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিক নন, আর ের কাছে এমন কোনো মেশিন নেই যার দ্বারা আতঙ্কবাদীদের উপর তদন্ত করা যায়। তবে আতঙ্ক বাদীদের উপর কোনো তদন্ত করার ক্ষমতা না থাকলেও, দেশের সর্বোচ্চ আদালত কিছু সিধান্ত না শোনালেও আতঙ্কবাদীদের নিরীহ ঘোষণা করেছেন।

এটা কোনো প্রথম ঘটনা নয়, এর আগেও যখনই কোনো আতঙ্কবাদীকে পাকড়াও করা হয়েছে তখনই প্রশান্ত ভূষণ দিব্য দৃষ্টির মাধ্যমে দেখে বলে দেন যে আতঙ্করা নিরীহ, তদন্তকারী সংস্থা ষড়যন্ত্র করেছে। সম্প্রতি রাষ্ট্রীয় তদন্তকারী সংস্থা NIA দিল্লী ও উত্তর প্রদেশে অভিযান চালিয়ে ISIS এর নেটওয়ার্ক ভেঙে দিয়েছে। দিল্লী ও উত্তরপ্রদেশ থেকে আতঙ্কবাদীদের গেপ্তার করা হয়েছে এবং কট্টরপন্থী আতঙ্কবাদীদের কাছে থেকে বিস্ফোটক, রকেট লঞ্চার, বন্ধুকের মতো ভয়ঙ্কর অস্ত্র পাওয়া গেছে।

তবে আতঙ্কবাদীদের এও গ্রেপ্তারের পর দেশের একটা বড় বর্গ তদন্তকারী সংস্থা ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। এই বর্গের মধ্যে কংগ্রেসের বড় বড় নেতা এবং বড় বড় উকিল সামিল রয়েছে যার মধ্যে একজন প্রশান্ত ভূষণ। এখন ধরা পড়া আতঙ্কবাদীরা নিরীহ মুসলিম বাকি কট্টরপন্থী সেটা আদালত শুনানির পর ঠিক করবে। কিন্তু প্রশান্ত ভূষণ এখন থেকেই তথ্য ও তদন্ত ছাড়াই আতঙ্কবাদীদের বাঁচানোর জন্য নেমে পড়েছে।

প্রশান্ত ভূষণ, আতঙ্কবাদীদের নিরীহ মুসলিম বলে তদন্তকারী সংস্থাকে ষড়যন্ত্রকারী ঘোষণা করেছেন। জানিয়ে দি, প্রশান্ত ভূষণ সেই উকিল যিনি কাশ্মীরকে ভারত থেকে আলাদা করার জন্য দাবি তুলেছিলেন, জঙ্গি ইয়াকুব মেনন মুখ্য উকিল হিসেবে ছিলেন এবং মধ্যরাতে আতঙ্কবাদীদের জন্য আদালতের দরজা খুলিয়ে ছিলেন। এছাড়াও প্রশান্ত ভূষণ অবৈধ রোহিঙ্গা মুসলিমদের মুখ্য উকিল হিসেবে কাজ করেন। এখন এতকিছুর পর প্রশান্ত ভূষণ আতঙ্কবাদীদের সমর্থনে নেমে এসেছেন।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.