Press "Enter" to skip to content

দিদি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে মেনে নিতে পারছেন! কিন্তু ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে মানতে পারছেন না!

২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম দফার ভোট প্রচারে আজ বাংলায় হাজির বিজেপির দুই দিগগজ নেতা। একজন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ()। আরেকজন দেশের প্রধানমন্ত্রী ()। গতকাল বিজেপির রাষ্ট্রীয় সভাপতি () এর রোড শোয়ে আক্রমণ করে দেখিয়ে দিয়েছিল গণতন্ত্রের খুন কি করে করতে হয়। আর আজ যোগী আদিত্যনাথের সভা পণ্ড করার জন্য সভা মঞ্চেই ভাঙচুর চালায় ের গুণ্ডারা। এমনকি মঞ্চ তৈরির কাজে লাগা শ্রমিকদের ও মারধর করা হয়। এই ঘটনার পরে যোগী আদিত্যনাথ হুঙ্কার দিয়ে বলেন, ‘দিদি () আপনি বাগদাদীর থেকে প্রভাবিত হয়ে বাগদিদি হয়েন না। আপনার পতন নিশ্চিত। এটাই আপনার শেষ ভুল ছিল।”

যোগী আদিত্যনাথের সভার পর আজ বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রে নির্বাচনী প্রচারে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র । সেখান থেকে তিনি তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জীকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন। তিনি বলেন, ‘দিদি এরাজ্যের এক কন্যা আপনার ছবি বানিয়ে গ্রেফতার হল। আরে দিদি আপনি তো নিজেই চিত্রকার। সারদা, নারদাতে আপনার ছবি কোটি কোটি টাকায় বিক্রি হয়েছে, আর আপনি নিজে শিল্পী হয়ে এই শিল্পটাকে মেনে নিতে পারলেন না?”

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘দিদি আপনি এক কাজ করুন। আপনি যতটা বাজে ভাবে পারবেন, আমার ছবি আঁকুন, আর ২৩ এ মে এর পর প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে এসে আমাকে উপহার দিয়ে যান। আমি মাথা পেতে নেবো আপনার ওই উপহার। আপনাকে গ্রেফতার করবো না দিদি।”

পাক প্রীতির প্রসঙ্গ টেনে এনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ দিদি সবকিছুতেই প্রমাণ চান। এয়ার স্ট্রাইকের প্রমাণ চান, স্যার্জিক্যাল স্ট্রাইকের প্রমাণ চান। আবার দিদি দেশের প্রধানমন্ত্রীকে মেনে নিতে চাননা। দিদি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে মেনে নিতে পারছেন। কিন্তু ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে মেনে নিতে পারেন না।”