Press "Enter" to skip to content

৫৫ মাসের কাজের খতিয়ান তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী, নীরব দর্শক হয়ে রইল বিরোধী গোষ্ঠী

লোকসভায় নিজের ভাষণের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সরকারের রিপোর্ট কার্ড ও পেশ করেন। উনি ভাষণ দেওয়ার সময় বিরোধীদের চরম আক্রমণ করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০০৯ এ ভারতীয় সেনা ১ লক্ষ ৮৬ হাজার বুলেট প্রুফ জ্যাকেট চেয়েছিল, কিন্তু পাঁচ বছরে কংগ্রেস একটিও জ্যাকেট কিনতে পারেনি। আর এরপরেও তাঁরা স্যার্জিক্যাল স্ট্রাইক নিয়ে সন্দেহ করে। কংগ্রেস সমেত সমস্ত বিরোধীদের উপর হামলা করে উনি ের ৫৫ মাসের রিপোর্ট কার্ড পেশ করেন।

  1. দেশের নাগরিকদের আশা আকাঙ্খা পুরো করার জন্য আমরা বদ্ধপরিকর।
  2. ২০০৪ এ কংগ্রেস বলেছিল, আমরা গ্রামকে ডিজিট্যাল করব। ২০১৪ পর্যন্ত কংগ্রেস শুধু ৯৫ টি গ্রামে অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক পৌঁছে দিয়েছিল। আমাদের সরকার ১,১৬,০০০ গ্রামে ব্রডব্যান্ড পৌঁছে দিয়েছে।
  3. কংগ্রেস ২০০৪, ২০০৯ আর ২০১৪ এর ঘোষণাপত্রে বলেছিল তিন বছরের মধ্যে দেশের প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেবে। গরিবি হাঁটাও স্লোগানের মতই প্রতি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও কংগ্রেস লোকসভা নির্বাচন এলেই দিয়ে থাকে।
  4. মুদ্রা যোজনার মাধ্যমে এখনো পর্যন্ত কোন গ্যারান্টির কাগজ না রেখেই ৭ লক্ষ কোটি টাকা বেকারদের ঋণ দিয়েছি।
  5. আমাদের সরকারের আমলে বিদেশ থেকে টাকা এনে আমাদের দেশের ক্ষতি করা এমন ২০ হাজার সংগঠনের দোকান বন্ধ করে দিয়েছি।
  6. বেনামি সম্পত্তির উপর আইন অনেক আগেই তৈরি হয়েছিল। কিন্তু সেটা নিয়ে সংসদে খালি তর্কই হত, আর ভোটের জন্য কাজ আটকে ছিল। আমাদের সরকার আসার পর আমরা সেই আইন চালু করে দিয়, আর তারপরই চারিদিক থেকে শুধু বেনামি সম্পত্তির খোঁজ মিলত। সবাই জানে যে সেই সম্পত্তি কাদের ছিল, আর কোথা থেকে বেড়াচ্ছিল।
  7. জিএসটি লাগু হওয়ার পর ৯৯ শতাংশ সামগ্রী ১৮ শতাংশ অথবা তার ও কম ট্যাক্স স্ল্যাবে চলে আসে।
  8. এডুকেশন ঋণে সুদের পরিমাণ কমিয়ে ১৫% থেকে ১১% করেছি আমরা।
  9. LED বাল্বের জন্য দেশে ৫০ হাজার কোটির থেকেও বেশি টাকা বিদ্যুতের বিলে কম এসেছে। যেটা গরীব আর মধ্যবিত্তদের উন্নতিতে খরচ হয়েছে।
  10. আমাদের সরকার দেশের মানুষদের সুস্বাস্থ আর তাঁদের উন্নতির জন্য কাজ করছে। হার্ট সার্জারি, হাঁটুর সার্জারি আর ওষুধের দাম লাগাতার কমছে। যার ফলে দেশের গরীব মানুষেরা শান্তি পাচ্ছে।
  11. দেশের গরিবেরা আগে পয়সা না থাকার জন্য মৃত্যুর অপেক্ষা করত, কিন্তু হাসপাতালে যেত না। এখন আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের মাধ্যমে এরকম ১১ কোটি গরীব মানুষের চিকিৎসা হয়েছে।
  12. সংবিধানে সংশোধন করে আমরা দেশের উচ্চ শ্রেণীর গরীব যুবকদের স্বপ্ন পূরণ করার সুযোগ করে দিয়েছি। এসসি-এসটি সংরক্ষণে হাত না লাগিয়ে উচ্চ শ্রেণীদের ১০% সংরক্ষণ দিয়েছি।
  13. আমাদের দেশে মার্চ ২০১৪ এ আনুমানিক ৬৫ লক্ষ মানুষ ন্যাশানাল পেনশন সিস্টেমে রেজিস্টার করেছেন। যেটা গত অক্টোবর মাসে বেড়ে ১ কোটি ২০ লক্ষ হয়েছে। এটা নতুন চাকরি ছাড়াই হয়ে গেলো নাকি?
  14. একটি পরিসংখ্যান অনুযায়ী বিগত সাড়ে চার বছরে শুধু ট্রান্সপোর্ট সেকশনে ১.২৫ কোটি মানুষ নতুন করে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন।

7 Comments

  1. Hey check out high line pointe, run by adeline bababikov: 1291 South Ulster street, denver co 80231 manager@highlinepointe phone: 720-513-3865

Leave a Reply

Your email address will not be published.