Press "Enter" to skip to content

ভারতের হামলার পর গৃহযুদ্ধের পরিস্থিতি পাকিস্তানে! চারিদিক থেকে উঠছে ‘ইমরান শেম-শেম” এর স্লোগান

আজ সকালে ভারতীয় বায়ুসেনা নিয়ন্ত্রণ রেখা পার করে পাকিস্তানে অবস্থিত জঙ্গি ঘাঁটি উড়িয়ে দিয়ে ৩০০ এর থেকে বেশি জঙ্গিকে খতম করেছে। আর এই ঘটনার পর ভারতীয় বায়ুসেনা প্রমাণ করল যে পাকিস্তান তাঁদের কাছে কিছুই না। দেশে পুলওয়ামা হামলার বদলা নেওয়ার জন্য বারবার চারিদিক থেকে দাবি উঠছিল। আর ভারতের এই পাল্টা হানার ফলে প্রতিবেশী জঙ্গিদের এখন থরথর করে কাঁপছে। আর ভারতে হামলার পর পাকিস্তান এখন দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পরেছে। এখন পাকিস্তানের সংসদে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে স্লোগান উঠছে।

পাকিস্তানি সংসদে আজ সাংসদ তুলনামূলক ভাবে অনেক কম উপস্থিত ছিল। সংসদের ভবনের ভিতরে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে ‘শেম-শেম” এর স্লোগান ও উঠেছে আজ। আর পাকিস্তানের সাংসদেরা ভারতের এই পাল্টা হামলার নিন্দাও করেছে। বিদেশ মন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি বলেন, ‘পাকিস্তান একটি দ্বায়িত্ববান দেশ, ওসামার সময় আমরা চুপ ছিলাম কিন্তু এবার চুপ থাকব না”

কুরেশি আবারও ভারতকে হুমকির সূরে বলেন, ‘ এটা ভারতের দ্বারা পাকিস্তানের বিরুদ্ধে করা এক বিরাট পদক্ষেপ। এটা নিয়ন্ত্রণ রেখা নিয়মের লঙ্ঘন করে করা হয়েছে। আর পাকিস্তানের কাছে এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া এবং আত্মরক্ষার সম্পূর্ণ অধিকার আছে” এরই মধ্যে কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে অরগানাইজেশন অফ ইসলামিক কর্পোরেশন আবু ধাবিতে ১লা এবং ২রা মার্চ এক বৈঠক ডেকেছে। প্রথমবার এই বৈঠকে ভারতের বিদেশ মন্ত্রী সুষমা স্বারাজ মুখ্য অতিথি হিসেবে আমন্ত্রিত হয়েছেন।

পাকিস্তানে এই বৈঠককে বয়কট করার দাবি উঠেছে। পাকিস্তান সুষমা স্বরাজকে অতিথি রুপে আমন্ত্রিত করার জন্য চরম ক্ষুব্ধ। অরগানাইজেশন অফ ইসলামিক কর্পোরেশন মুসলিম দেশ গুলোর এক মুখ্য সংগঠন। আর এর মধ্যে কুয়েত, ইরান আর আবুধাবির মত দেশ ও আছে।

আরেকদিকে সূত্র থেকে পাওয়া অনুযায়ী পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান আজকের এই ঘটনায় চর্চা করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক ডেকেছে।

10 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.