Press "Enter" to skip to content

কেজরিওয়াল দিল্লীকে লন্ডন করতে না পারলেও, মমতা পশ্চিমবঙ্গকে বাংলাদেশ করে ফেলেছেন- পুনম মহাজন।

আজ কলকাতার মেয়ো রোডের অল্প স্থানের মধ্যেই এসে জড়ো হয়েছিল ভারতীয় জনতা পার্টির লক্ষ লক্ষ কার্যকর্তা। মেয়ো রোডের সভা থেকে মমতার উপর যেসব নেতা নেত্রীরা আক্রমণ করেন তাদের মধ্যে সবথেকে আক্রমণ রূপে ছিলেন । সভায় ভাষণ শুরু করেই ‘মা মাটি মানুষ’ আর ‘পরিবর্তন’ শব্দ দুটির উপর জমিয়ে আক্রমন করেন। পুনম বলেন, ‘পরিবর্তনের কথা বলেছিলেন মমতা দিদি কিন্তু পরিবর্তন শুধু রঙের হয়েছে।

কমিউনিস্টদের লাল রং দিদির শাড়ির নীল সাদা রঙের মাধ্যমে পরিবর্তন হয়েছে। পরিবর্তন পশ্চিমবঙ্গের মানুষের হয়নি, পরিবর্তন হয়েছে রোজ ভ্যালি ও সারদা নারদার সাথে যুক্ত দুর্নীতিগ্রস্থ লোকদের।পরিবর্তন হয়েছে তো শুধু TMC এর লোকেরদের হয়েছে।’ মহাজন বলেন, ‘মমতা মা মাটি মানুষ নিয়ে নির্বাচন লড়ার কথা বলেছিল কিন্তু মমতা যেভাবে পরিবর্তন করেছে তাতে আমি উনাকে মমতা দিদি না বলে U টার্ন দিদি বলে ডাকবো।

এখন দিদি মা মাটি মানুষ নয়, আমি দিদি অমানুষ এই বিচার নিয়ে নির্বাচনে লড়াই করছে। TMC এখন তৃণমূল কংগ্রেস নয় টেরর মেকিং মেশিন এ পরিণত হয়েছে।’ শুধু এই নয়, আজ বাংলার মাটি থেকে রাহুল গান্ধী, কেজরিওয়াল ও মমতাকে একসাথে আক্রমণ করেন পুনম মহাজন। পুনম বলেন, কেজরিওয়াল বলেছিলেন দিল্লিকে লন্ডন বানিয়ে দেবে কিন্তু পারেনি, রাহুল বলেছিলেন আমেথিকে সিঙ্গাপুর বানিয়ে দেবে কিন্ত পারেনি ,তবে মমতা ব্যানার্জী চুপি সাড়ে পশ্চিমবঙ্গকে বাংলাদেশ বানিয়ে দিয়েছেন।

উল্ল্যেখ, পুনম মহাজনের পর অমিত শাহ এক হাতে নেন তৃণমূল কংগ্রেসকে। অমিত শাহ বলেন যে মমতা বিজেপিকে বাঙালি বিরোধী বলে প্রচার করছে। কিন্তু আমাদের পার্টির প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী পশ্চিমবঙ্গের , তাহলে কি করে আমরা বাঙালি বিরোধী হতে পারি। অমিত শাহ বলেন, আমি বাঙালি বিরোধী নয়, তবে আমি মমতা বিরোধী।