Press "Enter" to skip to content

মুখ পুড়লো কংগ্রেসের! রাফেল চুক্তি নিয়ে নরেন্দ্র মোদীর সমর্থন করলেন বায়ু সেনার প্রধান বি এস ধানোয়া।-Bengali news

বার বার মিথ্যা বললে সেটা সত্য মনে হয়। আর এটাই করার চেষ্টা করছিল কংগ্রেস সহ বিরোধী দলগুলি। নিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছিল কংগ্রেস সরকার। তবে এটাও সত্য যে রাহুল গান্ধী অন্যদের বিভ্রান্ত করতে গিয়ে নিজেই দিকভ্রষ্ট হয়েছিলেন। কারণ রাহুল গান্ধী কোনো সভাতেই রাফেলের আসল মূল্য বা দামের কি পার্থক্য হয়েছে সেই ব্যাপারে সঠিক বলতে পারেননি। কোথাও তিনি ৫০০ কোটি বলেছেন তো কোথাও ৭০০ কোটি আবার কোথাও ৬০০ কোটি, অর্থাৎ সরকারকেও ঘিরতে গিয়ে নিজেই প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছিলেন রাহুল গান্ধী। তবে সম্প্রতি আরো একবার মুখ পুড়লো রাহুল গান্ধীর। তবে এবার কোনো রাজনেতা নয় বায়ু সেনার চিফ রাফেল ডিলের বিষয়ে খোলাখুলি মন্তব্য করেছেন। রাফেল ডিলকে একটা সাহসী পদক্ষেপ বলে সুনাম করেছেন।

রাজধানী দিল্লিতে একটা প্রেস কনফারেন্স করে ধানোয়া বলেন, রাফেল ও S-400 এয়ার ডিফেন্স মিসাইল সিস্টেম দুটোই ভারতের জন্য বুস্টার ডোজের সমান। উনি বলেন সরকার যেই মাত্র s-400 এর মঞ্জুরি দেবে তখন থেকে ২৪ মাসের মধ্যে আমরা এটা পেতে শুরু করবো। রাফেল ডিলের প্রশ্নে ধানোয়া বলেন, ” আমরা কঠিন স্থিতির মধ্যে ছিলাম, আমাদের কাছে তিনটি বিকল্প ছিল। প্রথমত, কিছু ঘটার জন্য অপেক্ষা করা, দ্বিতীয়- RPF কে তুলে নেওয়া নতুবা তৃতীয়- কিছু এমার্জেন্সি আমদানি করা।

রাফেল ডিল আমাদের জন্য একটা বুস্টারের সমান।” ধানোয়া বলেন, সরকার একটা সাহসী পদক্ষেপ উঠিয়ে ৩৬ রাফেল ফাইটার বিমান কিনেছে। একটা উচ্চপ্রদর্শিত ও উচ্চমানের প্রযুক্তি সম্পন্ন সুসজ্জিত লড়াকু বিমান ভারতীয় বায়ুসেনাকে দেওয়া হয়েছে। যাতে আমরা আমাদের ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে পারি। বায়ুসেনার চিফ কিছুদিন আগে বলেছিলেন, ” যেহেতু আমাদের প্রতিবেশী দেশগুলি দ্বিতীয় ও তৃতীয় জেনারেশনের ফাইটার বিমানকে চতুর্থ ও পঞ্চম জেনারেশন দ্বারা পরিবর্তন করে নিয়েছে তাই আমাদেরও বিমানকে আপগ্রেট করতে হবে।

যেকোনো প্রকার সংঘর্ষের স্থিতিকে আটকানোর জন্য সম্পুর্ন প্রস্তুত হতে হবে। যাতে আমরা দুই ফ্রন যুদ্ধের জন্যেও প্রস্তুত থাকতে পারি।” রাফেল চুক্তিকে ভারতের জন্য গেম চেঞ্জার বলে উল্লেখ করেন চিফ বি এস ধানোয়া। ধানোয়া সাফ জানান HAL এর নির্বাচন নিয়ে সরকার বা IAF এর কিছু করার নেই। অর্থাৎ এটা পরিষ্কার যে বিরোধীদের সমস্থ দাবি মানুষকে শুধুমাত্র বিভ্রান্ত করার জন্যই করা হচ্ছিল।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে ভাইস চিফ এয়ার মার্শাল দেব বলেছিলেন, ‘ এটা খুবই সুন্দর একটা এয়ারক্রাফট। এটা খুবই ক্ষমতাশালী এবং আমরা এটাকে উড়ানোর জন্য অপেক্ষা করছি। রাফেল ডিল সম্পর্কিত এক প্রশ্নে উনি বলেছিলেন, রাফেল ডিলের ফলে ভারতের লড়াই করার ক্ষমতায় এক বড় ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে। ভারত সেপ্টেম্বর ২০১৬ তে দুই দেশের মধ্যে এই চুক্তিতে মোহর লাগিয়েছিল।
জানিয়ে দি, বি এস ধানোয়া এর বক্তব্য নিয়ে কংগ্রেসকে প্রশ্ন করা হলে, কংগ্রেস রাফেল নিয়ে এড়িয়ে যেতে শুরু করে।