মানস সরোবরের যাত্রায় মাংস খেয়ে হাতে নাতে ধরা পড়লেন রাহুল গান্ধী।

কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর মানস সরোবর যাত্রা এবার বিবাদের মধ্যে চলে এসেছে। যাত্রা শুরু হওয়ার পর থেকে একের পর এক বিতর্ক সামনে আসতে শুরু করেছে। নেপালে নন ভেজ খাবার খাওয়ার পর রাহুল গান্ধী মানুষের নিশানায় চলে এসেছিলেন। যার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় লোকজন রাহুল গান্ধীর উপর ফেটে ক্ষোপ প্রকাশ করেন। প্রথমে কংগ্রেস সমর্থকদের দাবি ছিল যে এই তথ্য ভুল। কিন্তু যে রেস্টুরেন্টে রাহুল গান্ধী খাওয়া দাওয়া করেছিলেন সেই রেস্টুরেন্টের কর্মচারী মুখ খুলে রাহুল গান্ধীর পোল খুলে দিয়েছেন। আসলে রাহুল নেপালের পর চীনের রাস্তায় মানস সরোবর যাত্রা করবেন। রাহুল গান্ধী নেপাল গিয়ে এক রেস্টুরেন্টে খাওয়া দাওয়া করেছিলেন। নেপালের এক ওয়েব সাইটের দাবি ছিল রাহুল গান্ধী নেপালে চিকেন ও শুয়ারের মাংস খেয়েছিলেন।

এই খবর সনে আসার পর থেকে কংগ্রেসের মধ্যে হৈচৈ শুরু হয়ে গেছিলো। এখন ওই রেস্টুরেন্টের এক কর্মচারী কাছ থেকে অবাক করে দেওয়ার মতো বক্তব্য সামনে এসেছে। জানা গেছে রাহুল গান্ধী নেপালের কাঠমাণ্ডুর ভুটু রেস্টুরেন্টে নন ভেজ খাবার খেয়েছেন। এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন রেস্টুরেন্টের ওয়েটার। রাহুল গান্ধী রেস্টুরেন্টে চিকেন মোমো, চিকেন কুরকুরে ও বাদলেক ডিশের অর্ডার করেছিল। রেস্টুরেন্ট কর্মচারীর বক্তব্য সামনে আসার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় লোকজন রাহুল গান্ধীর উপর ক্ষোপ প্রকাশ করতে শুরু করে দিয়েছেন।

কৈলাস মানসরোবর যাত্রায় গিয়ে রাহুল গান্ধী নন ভেজ খেয়েছেন যা হিন্দুদের আস্থাকে আঘাত হেনেছে। রাহুল গান্ধীর এমন আচরণ হিন্দু সঙ্গস্কৃতির বিরুদ্ধে। রাহুল গান্ধীর এই যাত্রাকে আগেই দেশের জনগন ভণ্ডামি বলে ঘোষণা করেছিল। এখন রাহুল গান্ধীর এই হিন্দু বিরোধী আচরণের জন্য উনি আরো বড়ো ক্ষোপের সম্মুখীন হতে পারেন।

Open

Close