ব্রেকিং খবরঃ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে গোপন রিপোর্ট পাঠালেন রাজ্যপাল, রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হওয়ার জোর জল্পনা

গতকালের রাতের কাণ্ডে এরাজ্যের রাজনীতিতে একেবারে বলতে গেলে সুনামি এসে গেছে। একদিকে যখন মমতা ব্যানার্জী সারদা কাণ্ডে দুর্নীতিতে অভিযুক্ত আইপিএস অফিসার রাজীব কুমারকে বাঁচাতে ব্যাস্ত। অন্যদিকে তখন সিবিআই ও নাছোড়বান্দা হয়ে রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে কোমর বেঁধে নেমেছে। আজ সকালে সুপ্রিম কোর্ট শুরু হওয়ার পরেই, রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন সিবিআই এর আইনজীবি। আরেকদিকে সিবিআই এর প্রধান ও রাজীব কুমারকে জেরা করতে এরাজ্যে আসতে চলেছেন।

আবার অন্যদিকে সিবিআই এর অফিসারদের হেনস্থা করার জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের থেকে রিপোর্ট তলব করা হল এরাজ্যের তিন আইপিএস অফিসারকে। গতকাল সন্ধ্যায় রাজীব কুমারের বাড়ির সামনে তদন্তে আসা সিবিআই অফিসারকে চরম হেনস্থা করে কলকাতা পুলিশ।

এমনকি ওই সিবিআই অফিসারকে টেনে হিঁচড়ে পুলিশের গাড়িতে তলার অভিযোগ ওঠে কলকাতা পুলিশের বিরুদ্ধে। সিবিআই এর অফিসার কলকাতা পুলিশ কমিশনার এর বাড়িতে বসে ওনার সাথে কথা বলার জন্য গেছিলেন। কিন্তু বাড়ির সামনে কমিশনারের নিরপত্তা রক্ষীরা সিবিআই এর অফিসারের সাথে চরম অভদ্র ব্যাবহার করেন।

আর এই নিয়েই চারিদিক থেকে প্রশ্ন উঠছে যে, আইপিএস অফিসারেরা কিভাবে একজন কর্তব্যরত সিবিআই এর অফিসারের সাথে এরকম ব্যাবহার করতে পারেন? কলকাতার ওই তিন আইপিএস অফিসারের বিরুদ্ধে আইপিএস রুল বুক ভাঙার অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল ঘটে যাওয়া এই অমানবিক ঘটনার জন্য রাজ্যের কাছে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। আরেকদিকে এরাজ্যের পরিস্থিতির উপর নজর রাখার জন্য রাজ্যপালের কেশরীনাথ ত্রিপাঠিকেও অনুরোধ জানান হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী রাজনাথ সিং এর তরফ থেকে।

গতকালের ঘটে যাওয়া এই কাণ্ডে উদ্বেগ প্রকাশ করে এই অনুরোধ করা হয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর তরফ থেকে। একটি সংবাদ মাধ্যমের প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, রাজ্যপাল ডিজি এবং স্বরাষ্ট্রসচিবের সাথে কথা বলে কেন্দ্রকে রিপোর্ট পাঠাবেন বলে জানিয়েছিলেন। আর রাজ্যপালের তরফ থেকে খানিক আগেই ইমেইলের মাধ্যমে সেই রিপোর্ট কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে পাঠানো হয়েছে বলে খবর।

রবিবার রাতের ঘটনার পর বিভিন্ন মহল থেকে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে যে, রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু হতে পারে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু করার কথা বলেন। আরেকদিকে কংগ্রেসের সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরিও এই পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে, রাজ্য রাষ্ট্রপতি শাসনের কথা বলেন। আর এরই মধ্যে রাজ ভবন থেকে গোপন রিপোর্ট যাওয়াতে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু হওয়ার আশঙ্কা আরও বাড়িয়ে তুলেছে।

Leave a Reply

you're currently offline

Open

Close