Press "Enter" to skip to content

এবার দেশের তথাকথিত বুদ্ধিজীবীদের উদ্দেশ্য কড়া বার্তা দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং।

মহারাষ্ট্রে হওয়া ভীমা কোরেগাঁও হিংসা ছড়ানো ও প্রধানমন্ত্রী মোদীকে হত্যার যে ষড়যন্ত্রকারী উর্বান নকশালীদের গেপ্তার করার পর থেকে রাজনৈতিক উথাল পাতাল থেমে থাকার নাম নিচ্ছে না। বিরোধী ও তথাকথিত বুদ্ধিজীবীরা নকশালীদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে সরকারের উপর হামলা শুরু করে দিয়েছে। তথাকথিত বুদ্ধিজীবী ও নকশাল সমর্থক কিছু দালাল মিডিয়ার দাবি সরকার বিরোধীদের আওয়াজকে চাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। নকশাল সমর্থকদের দাবি সরকার বিরোধীদের আওয়াজকে দাবানোর চেষ্টা করছে। কিন্তু দেরী হলেও এবার সরকারলে এই নকশাল সমর্থকদের প্রতি কঠোর হতে দেখা যাচ্ছে। অর্বান নকশালীদের গেপ্তার করার উপর যে তথাকথিত বুদ্ধিজীবীরা সরকারকে দোষারোপ করছেন তাদেরকে কড়া জবাব দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

রাজনাথ সিং তথাকথিত বুদ্ধিজীবীদের উদ্যেশে বলেন, লোকতন্ত্রে সবকিছু বলা ও সবকিছু করার অধিকার দেওয়া হয় কিন্তু দেশ ভাঙার কোনো অধিকার দেওয়া যাবে না। তিনি বলেন যে পাঁচজন মানিবাধিকার কর্মী গেপ্তার হয়েছেন তারা আগেও গেপ্তার হয়েছেন। জানিয়ে দি,অভিযোগ খুবই গম্ভীর- কোনো লোকতান্ত্রিক সরকারকে ভেঙে ফেলার চেষ্টা, হিংসা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য নিজেদের বিচারধারাকে এইভাবে ব্যাবহার করার মতো বড়ো অপরাধ কিছু হয় না।

রাজনাথ সিং বলেন, এটা দেশের লোকতান্ত্রিক ব্যাপার তাই সরকার এই ব্যাপারে প্রতিবদ্ধ। মহারাষ্ট্র পুলিশ বিষয়টিকে খুঁটিয়ে তদন্ত করছে। নকশালীরা নিজেদের বিচারধারার দ্বারা দেশ প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে। রাজনাথ সিং বলেন, আমরা দেশের ক্ষমতায় আছি তাই এটা আমাদের দায়িত্ব দেশের অখন্ডতার খেয়াল রাখা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি এটা স্পষ্ট করে দিতে চাই যে বলার স্বাধীনতা সকলের আছে কিন্তু দেশ ভাঙার স্বাধীনতা কাউকে দেওয়া যাবে না। সিং বলেন, নকশালীরা এখন সরকারকে দাপটে ১২৬ জেলা থেকে কমে ১০-১২ টি জেলায় রয়ে গেছে কিন্তু এরা এখন শহরে এসে অন্য নীতি প্রয়োগ করে দেশকে ভাঙতে চাইছে।

যে অর্বান নকশালীদের গেপ্তার করা হয়েছে তাদেরকে কিছু দালাল মিডিয়া সামাজিক কার্যকর্তা ও মানবআধিকারিক বলে দাবি করছে। যদিও এরা সাধারণ মানুষের জন্য দাবি না তুলে পাথরবাজ ও আতঙ্কিদের জন্য অধিকারের দাবি তুলতো। এখন মোদী সরকার আসার পর থেকে এদের ()উপর এতটাই চাপ সৃষ্টি হয়েছে যে লোকতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারকে ভাঙা ছাড়া কিছু উপায় খুঁজে পাচ্ছে না।