Press "Enter" to skip to content

হিন্দুদের জন্য খুশির খবর : বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে রামায়ণ এক্সপ্রেস।

দেশের প্রমুখ তীর্থস্থলকে জুড়ে দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় রেল মন্ত্রীর তরফে শুরু করা বুধবার অর্থাৎ আজ থেকে শুরু হতে চলেছে। রেলমন্ত্রক দিল্লীর সফহারাগঞ্জ স্টেশন থেকে ১৪ নভেম্বর ২০১৮ অর্থাৎ আজকে ট্রেন রওনা করবেন। ৮০০ যাত্রী ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন এই ট্রেনের যাত্রার জন্য ব্যাক্তি প্রতি ১৫ হাজার ১২০ টাকা প্রদান করতে হবে। এই প্যাকেজের মধ্যেই খাবার সহ অন্যান্য পরিষেবা প্রদান করা হবে। এই যাত্রা প্যাকেজের মধ্যে শ্রীলঙ্কার যাত্রাকেও জুড়ে দেওয়া হয়েছে কিন্তু সেটার জন্য আপনাকে আলাদা করে কিছু পেমেন্ট করতে হতে পারে।

যদি আপনি ভগবান রামের সাথে জুড়ে থাকা গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলির পরিদর্শন করতে চান তাহলে আপনার জন্য ভারতীয় রেল বড়ো উপহার নিয়ে হাজির হয়েছে। ভারতীয় রেলওয়ে ও আইআরসিটিসি (IRCTC) ভগবান রামের সাথে জুড়ে থাকা স্থানগুলির উপর দিয়ে একটা বিশেষ ট্রেন চালানোর সিধান্ত নিয়েছে। দিল্লী থেকে বেরিয়ে এই ট্রেন প্রথমে অযোধ্যায় হনুমান গড়ি, রামাকোট ও কনকভবন মন্দিরের দর্শন করাবেন। এই ট্রেন রামায়ণ সার্কিটের সাথে জুড়ে থাকা নন্দীগ্রাম, সীতামারী, জনকপুর, বারাণসী, প্রয়াগ, সিংপুর, চিত্ৰকূট, নাসিক, হামপি ও রামেসরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অবধি পৌঁছাবে।

রামায়ণ এক্সপ্রেস নিয়ে মানুষের মধ্যে খুবই উৎসাহ রয়েছে এবং রেলওয়ে এটা থেকে ভালো লাভবান হবে বলে মনে করা হচ্ছে। ১৪ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া রামায়ণ এক্সপ্রেসের উপর যে হারে সাড়া আসছে সেই দিকে লক্ষ রেখে সরকসর এই রকম আরো ৩ টি ট্রেন চালু করতে চলেছে। রেল আধিকারিকরা বলেছেন স্পেশ্যাল ট্রেনে সাধারণত ৫০-৬০% আসন পূরণ হয়ে যায়।

কিন্তু রামায়ণ এক্সপ্রেস ৭ জুলাই ঘোষণা করা হয়েছিল এবং তার মাত্র ১৫ দিনের মধ্যে সমস্ত আসন বুক হয়ে গিয়েছে। এবার রেলমন্ত্রক এই ধরণের তিন ট্রেন রাজকোট, জয়পুর, মাদুরাই থেকে চালু করতে চলেছে। সব ট্রেন গুলি অবশ্যই অযোধ্যা যাবে যেটা ভগবান শ্রী রামের জন্মভূমি। আসলে খুব কম খরচায় এই ভ্রমণ সম্পন্ন হয়ে যাবে বলে মনে করছেন পর্যটকরা তাই এই ট্রেন নিয়ে সকলের মধ্যে উৎসাহ রয়েছে। এক পর্যটক জানিয়েছেন, যদি আলাদা আলাদা করে ভ্ৰমন করি তাহলে খরচ ও সময় দুটোই বেশি লাগবে কিন্তু এই ট্রেনের মাধ্যমে খুব কম খরচায় পুরোটা সম্পন্ন হবে।