Press "Enter" to skip to content

পুলওয়ামা হামলার বদলা নেওয়া উচিত নয়, যারা বদলার কথা বলছে তারা মানসিক রোগী: মুসলিম সাংবাদিক।

পাকিস্থানের পোষা আতঙ্কবাদীরা সামনে থেকে লড়াই করতে না পেরে গতকাল ভারতের সেনার উপর পেছন থেকে IED দিয়ে আক্রমন করেছে। যাতে ৪৫ জন জওয়ান বলিদানি হয়েছেন। ঘটনা নিয়ে দেশ উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে। গতকাল কাশ্মীরের পুলবামায় এই ঘটনা ঘটিত হয়েছে। জানিয়ে দি, গতকাল যেটা ঘটিত হয়েছে সেটা এক ধরণের জিহাদ। জান্নাত পাওয়ার প্রলোভনে মহম্মদ আদিল নামক জিহাদি(আতঙ্কবাদী) এই জিহাদ করেছে। আর এই জিহাদের পেছনে সম্পুর্নভাবে পাকিস্থানের হাত রয়েছে। যার জন্য দেশবাসী এক সুরে বদলার আওয়াজ তুলেছে। পুরো দেশ এক সুরে জওয়ানদের বলিদান হওয়ার বদলা চাইছে। অবশ্য কিছু বামপন্থী, কট্টরপন্থী, দালাল মিডিয়া তাদের এজেন্ডা শুরু করে দিয়েছে। দালাল মিডিয়া ও সেকুলারবাদীরা পাকিস্থানকে নির্দোষ প্রমাণ করতে নেমে পড়েছে অন্যদিকে এত বড় ঘটনার পর কিছুজন শান্তির গল্প শোনাতে শুরু করেছে।

সেনা জওয়ানরা আমাদের পরিবারের(প্রত্যেক ভারতবাসীর পরিবারের) সুরক্ষার জন্য নিজের প্রানের বাজি রেখে ডিউটি পালন করে। আর আজ যখন ৪৫ জন সেনা জওয়ানের বলিদানে উনাদের পরিবার কাঁদছে তখন প্রত্যেক দেশবাসীর উচিত সেনা জওয়ানদের পরিবারের আবেগকে বুঝে বদলার আওয়াজ তোলা। এটাই সেনাদের প্রতি আমাদের কর্তব্য পালনের সময়। সেনা জওয়ানদের পরিবারের দুঃখ যন্ত্রনা আমাদের দুঃখ যন্ত্রনা এটা বুঝিয়ে দিয়ে একতা দেখানোর সময় এটা।

কিন্তু কিছু মিডিয়া, মানুষের এই বদলা চাওয়ার আওয়াজকে উগ্রবাদ বলে দেখানোর চেষ্টা করছে। অর্থাৎ যাতে দেশের মানুষ বদলার কোনো আওয়াজ না তুলে তার চেষ্টা চালাচ্ছে দেশের দালাল মিডিয়া। রানা আইয়ুব নামক এক মুসলিম সাংবাদিক পাকিস্থানের বিরুদ্ধে বদলা চাওয়াকে মানসিক রোগ ব্যাক্ত করেছেন। এই মুসলিম সাংবাদিকের কাছে জান্নাতের জন্য জিহাদ করে মানুষের প্রাণ কেড়ে নেওয়া মানসিক রোগ নয়, কিন্তু বলিদানি জওয়ানদের জন্য আওয়াজ উঠানো মানসিক রোগ।

এই মুসলিম সাংবাদিক বলেছেন যারা বদলা নেওয়ার কথা বলছে তারা রোগী, তারা সিক তথা মানসিকভাবে দুর্বল। অথচ এই সাংবাদিক ইসলামিক আতঙ্কবাদ বা জিহাদ সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করেনি।শুধু মাত্র পাকিস্থানের উপর বদলা নেওয়ার কথা শুনেই সাংবাদিক রেগে উঠেছে।

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.