Press "Enter" to skip to content

সামনে এলো উত্তরপ্রদেশে কাশ্মীরি মুসলিমকে পেটানোর আসল সত্য! যোগীকে বদনাম করার জন্য করা হয়েছিল এই প্ল্যান!

লোকসভা নির্বাচনের আগে মোদী,যোগী,বিজেপি সরকার সেকুলারদের আক্রমনের মুখোমুখি হবে। দালাল মিডিয়া যারা কংগ্রেস আমলে বহু কোটি লুটতে সক্ষম হতো তাদের এখন দুর্দিন চলছে। NDTV এর মত কট্টর মোদী বিরোধী চ্যানেল এখন ক্ষতিতে চলছে। তাই দালাল মিডিয়া ও সেকুলার নেতারা মিলে মোদীকে ক্ষমতা থেকে সরানোর ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এই জন্য মোদী ও যোগীর বিরুদ্ধে প্রোপাগান্ডা চালানোর কাজও ব্যাপকভাবে চলছে।

বিগত দিনে ের লখনউ থেকে একটা ঘটনা সামনে এসেছিল। যেখানে দেখা যাচ্ছিল যে গেরুয়া বস্ত্র পরিধানকারী কিছুজন এক কাশ্মীরিকে পেটাচ্ছে। ঘটনার পর দেশের মিডিয়াগুলি এই ইস্যুতে একের পর এক ডিবেট, প্রাইম টাইমের আয়োজন করে। ঘটনাকে নিয়ে দালাল মিডিয়াগুলি অনবরত মোদী, যোগী, বিজেপির উপর দায়ভার চাপিয়ে প্রোপাগান্ডা চালাতে থাকে।যোগী সরকার ২৪ ঘন্টার মধ্যে কাশ্মীরি ব্যাক্তির গায়ে হাত তোলা অপরাধীদের গ্রেপ্তার করে এবং এখন চমকে দেওয়ার মতো সত্য সামনে আসছে।

জানলে অবাক হবেন, লখনউতে ঘটিত হওয়া পুরো ঘটনাটি স্ক্রিপ্টটেড ছিল অর্থাৎ পূর্বপরিকল্পিত ছিল। টাকা নিয়ে পরিবেশন করা মিডিয়া মানুষের থেকে সত্যকে আড়ালে রেখে মোদী,যোগী ,হিন্দুত্ববাদের প্রতি আক্রোশ দেখাতে শুরু করেছিল। লখনউ এর ঘটনায় হিমাংশু আবস্তি নামক যে ব্যাক্তির নেতৃত্বে  কাশ্মীরিকে মারা হয়েছিল তার সব বিবরণ সামনে চলে এসেছে।  হিমাংশু আবস্তি নামক ব্যাক্তি মোদী, যোগী, বিজেপি অথবা হিন্দু সংগঠনের কার্যকর্তা নয়। হিমাংশু আবস্তি আসলে সমাজবাদী পার্টির কার্যকর্তা।

হিমাংশু আবস্তি নামক ব্যাক্তি সমাজবাদী পার্টির নেতা অখিলেশ যাদবের খুবই খাস লোক। অখিলেশের সাথে হিমাংশু আবস্তির বহু ছবিও এবার সামনে এসে গেছে। সমাজবাদী পার্টি গুন্ডাদের পার্টি নামে পরিচিত যারা উত্তরপ্রদেশে তোলাবাজি করার জন্য কুখ্যাত। অখিলেশের এই গুন্ডারায় পুরো প্লান করে যোগীর বদনাম করার জন্য গেরুয়া বস্ত্র পরিধান করে কাশ্মীরি ব্যাক্তির উপর অত্যাচার করেছিল।আর দালাল মিডিয়া খবরটি পাওয়া মাত্র ঘন্টাখানেক প্রাইম টাইম, ডিবেট করতে শুরু করে দেয়।

7 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.