Press "Enter" to skip to content

নরেন্দ্র মোদীর সফরের পর, ৪৫ দিনে রেকর্ড ৭.৩ লক্ষ ভক্ত গেলেন কেদারনাথের সেই গুহাতে

হিমালয়ে হিন্দুদের পবিত্র তীর্থ স্থান কেদারনাথ আবার শিরোনামে। ২০১৩ এর বিধ্বংসী প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের পর কেদারনাথে যাওয়া মহাদেবের ভক্তদের সংখ্যা কমে গেছিল। কিন্তু ছয় বছর পর এবার সেখানে রেকর্ড পরিমাণে ভকদের সমাগম হয়। আপনি জেনে অবাক হবেন যে, গত বছর ছয় মাসে কেদারনাথে ৭.২৩ লক্ষ মানুষ পৌঁছেছিলেন। কিন্তু নরেন্দ্র মোদীর কেদার নাথ সফরের পর, মাত্র দিনে  সেখানে এখনো পর্যন্ত গত বছরের থেকে বেশি মানুষ দর্শনে গেছেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কেদারনাথের ধ্যান গুহাতে সাধনার পর সেখানকার গুহা এখন তীর্থ যাত্রীদের আকর্ষিত করছে। ৯ জুলাই পর্যন্ত গাড়োয়াল মণ্ডল বিকাশ নিগম ধ্যান গুহার জন্য অনলাইন আর অফলাইন বুকিং পেয়েছে। এর মানে এই যে, আগামী ৯ জুলাই পর্যন্ত ওই গুহা ফুল বুকড।

আপানদের জানিয়ে রাখি, গত মাসের ১৮ মে কেদারনাথ সফরে ছিলেন নরেন্দ্র মোদী। সেখানে গিয়ে একটি গুহাতে ১৭ ঘণ্টা বসে সাধনা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর তখন থেকেই কেদারনাথ তীর্থ যাত্রীদের কাছে আরও আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে। গাড়োয়াল মণ্ডল বিকাশ নিগম এর অনুসারে, ওই গুহাতে ধ্যান করার জন্য প্রতিদিনই বুকিং পাওয়া যাচ্ছে। আগামী ৯ জুলাই পর্যন্ত ওই গুহা ফুল বুক করা আছে।

তীর্থ যাত্রীদের সুবিধার জন্য সেখানে অফলাইন আর অনলাইন দুটির মাধ্যমেই বুকিং করা হচ্ছে। এই মাসের গুহায় ধ্যান করার জন্য অ্যাডভান্স বুকিং আগে পেয়েছিল গাড়োয়াল মণ্ডল বিকাশ নিগম। গুহা ছোট হওয়ার জন্য এক সময়ে কেবল মাত্র একজনই ধ্যান করতে পারছেন। ধ্যান গুহায় ধ্যান করার জন্য গাড়োয়াল মণ্ডল বিকাশ নিগম নুন্যতম আয়ু ১৮ বছর নির্ধারিত করেছে।

যারা ওই গুহা ধ্যানের জন্য বুকিং করছে, তাঁদের জন্য স্বাস্থ পরীক্ষার সাথে সাথে স্থানীয় ডাক্তারদের চিকিৎসা প্রমাণ পত্র অনিবার্য করা হয়েছে। গুহায় ধুমপান, মদ্যপান নিষিদ্ধ। গুহায় ধ্যান করা যাত্রীদের উপর নজর রাখা হচ্ছে নগর নিগমের পক্ষ হইতে। কেদারনাথ গুহায় দিন আর রাতে ধ্যান করার জন্য আলাদা আলাদা শুল্ক নির্ধারণ করা হয়েছে।

দিনে ৯০০ টাকা আর রাতে তীর্থ যাত্রীদের থেকে ১৫০০ টাকা নেওয়া হচ্ছে। বুকিং এর সময় নগর নিগম দ্বারা একজন কর্মচারী গুহার সামনে বিশেষ ডিউটিতে লাগানো হচ্ছে। কেদারনাথ এলাকায় আরও তিনটে ধ্যান গুহার নির্মানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নগর নিগম।