Press "Enter" to skip to content

এটাই সত্যিকারের ভারতীয়তা! আরবি সংস্কার ত্যাগ করে পবিত্র কুম্ভ স্নান করলেন রিজভান আহমেদ।

ভারত দেশের সমস্থ জনগণের পূর্বপুরুষ এক, ভারতে বসবাস করা কোনো আব্দুল সৌদি আরব থেকে আসেনি এমনকি ভারতে বসবাস করা কোনো জন ব্রিটেন থেকে আসেনি। ধৰ্মপরিবর্তন, ভেদাভেদ ইত্যাদি কারণে ভারতের বহু মানুষ আব্দুল, জনে পরিণত হয়েছে। কিন্তু সবার DNA একই, আব্দুল বা জন নাম রাখলে বা অন্য সঙ্গস্কৃতি পালন করলে তার DNA পরিবর্তন হয়ে যায় না।
কিন্তু দেশে কট্টরপন্থীদের কোনো অভাব নেই, কট্টরপন্থী আব্দুল নিজেকে আরবিদের বংশধর মনে করে এবং কট্টরপন্থী জন নিজেকে ইংরেজ মনে করে। কিন্তু এই দুজনের শারীরিক গঠন আরবীদের সাথেও মিল খায় না এবং ইংরেজদের সাথেও মিল খায় না। দু জনের গঠন বাকি হিন্দুস্থানীদের মতোই। আসলে ভারতে যে ধর্মের ব্যাক্তি থাকুক না কেন তারা সকলেই এক,সকলের পূর্বপুরুষ এক।

ভারতে জন্ম নেওয়া সকলে ভারতীয় এবং সকলের উচিত ভারতীয় সঙ্গস্কৃতির সন্মান করা। ভারতের মূল সঙ্গস্কৃতির প্রতি সম্মান জ্ঞাপন করা উচিত। ধৰ্ম পরিবর্তন হলে কখনোই পূর্বপুরুষ, DNA বদলে যায় না। অবশ্য দেশে সত্যিকারের ভারতীয়দের মানুষেরও দেখাও মেলে যারা নিজেদের ধৰ্মীয় গোঁড়ামিতায় আটকে না থেকে ভারতীয় সংস্কৃতিকে আপন করে নিয়েছে। স্বর্গীয় ভারতরত্ন অতল বিহারী বাজপেয়ী হোক বা রিজভান আহমেদের মতো ব্যক্তিত্বরা ভারতীয় হওয়ার উদাহরণ উপস্থাপন করেছেন।

গতকাল ডক্টর রিজভান আহমেদ সত্যিকারের ভারতীয় হওয়ার উদাহরণ প্রতিস্থাপন করে কট্টরপন্থীদের মুখে ঝামা ঘষে দিয়েছেন। ডক্টর রিজভান আহমেদকে আপনারা অনেকবার টিভি শোতে দেখেছেন। রিজভান আহমেদ কট্টরপন্থীদের তীব্র বিরোধী, কট্টরপন্থীর বহুবার রিজভান আহমেদকে প্রাণে মারার হুমকি পর্যন্ত দেয়।

কিন্তু কট্টরপন্থীদের হুমকি সত্ত্বেও রিজভান আহমেদ এমন এমন কার্য করে দেখান যা সকল ভারতীয়দের গর্বিত করে। সম্প্রতি কুম্ভমেলার গিয়ে রিজভান তার সত্যিকরে ভারতীয় পরিচয় বহন করার উদাহরণ দেখিয়েছেন। ধর্মের ঊর্ধ্বে ভারতীয়তা, সমস্থ ধর্মের ঊর্ধ্বে ভারতের সঙ্গস্কৃতি, কুম্ভে স্নান করে এটাই প্রমান করতে চেয়েছেন রিজভান আহমেদ। নিজে একজন শিয়া মুসলিম হয়েও উনি কুম্ভ মেলায় স্নান করে এসেছেন এবং ভারতীয় সঙ্গস্কৃতিকে সন্মান দিয়েছেন।

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.