Press "Enter" to skip to content

১ বার নয়, দুবার নয়, ১১ হাজার বার “ভারত মাতার জয়” বলে ইসলামিক সংগঠনের মুখে ঝামা ঘষে দিলেন এই মুসলিম ব্যাক্তি।

দেশের কট্টরপন্থী সংগঠন দারুল উলুম দেববান্দ এর দেওয়ার ফতোয়ার উপর জোরদার জবাব দিয়ে কট্টরপন্থীদের মুখে ঝামা ঘষে দিলেন ইসলামিক কট্টরপন্থী সংগঠনকে এমন জবাব দিয়েছেন যে পরের ফতোয়ার বের করার আগে ১০০ বার চিন্তা করবে। তার বিশেষ স্টাইলে ইসলামিক ফতোয়ার বিরোধ করেছেন।

আসলে প্রজাতন্ত্র দিবসের ঠিক আগে মুসলিমদের মধ্যে ধার্মিক উন্মাদনা বাড়িয়ে তুলতে এবং সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়ানোর জন্য এক ফতোয়া জারি করা হয়েছিল দারুল উলুমের তরফ থেকে। ফতোয়া জারি করে বলা হয়েছিল যে কোনো মুসলিম যেন প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন বা অন্য কোনোদিন “ভারত মাতার জয়” না বলে।

এরপরেই ফতোয়ার উপর মন্তব্য করে রিজয়ান আহমেদ ঘোষণা করেছিলেন যে উনি ২৯ শে জানুয়ারি লখনউতে সারাদিন ভারত মাতার জয়ধ্বনি করবেন। আজ ২৯ শে জানুয়ারি, আজকের সকাল থেকে রিজয়ান আহমেদ নিজের কথা রাখতে এবং ইসলামিক কট্টরপন্থীদের জবাব দিতে লখনউতে ভারত মাতার জয়ধ্বনি দেন।

রাষ্ট্রবাদী মানুষজন উনার এই পদক্ষেপ দেখে এগিয়ে আসেন এবং উনার সাথ দেন। আজ লখনউতে রিজয়ান আহমেদ একবার, দুবার নয় ১১ হাজার বার ভারত মাতার জয় বলে জপ করেন। এই উপলক্ষে রিজয়ান আহমেদ প্রদীপ জ্বালিয়ে ভারতীয়তা এবং দেশভক্তির সংকেত দেন। রিজয়ান আহমেদ একজন আহমেদিয়া মুসলিম। উনি ইসলামিক সংগঠনের ফতোয়ার পুরো বিনাশ করে দেন। ফতোয়াতে বলা হয়েছিল যে কোনো মুসলিম যেন ভারত মাতার জয় না বলে, রিজয়ান আহমেদ সেই ফতোয়ার মান্যতা ধুলোয় মিশিয়ে দেন।

জানিয়ে দি, এই ধরণের ইসলামিক সংগঠনগুলি নানা জিহাদের মাধ্যমে ভারতকে ইসলামিক দেশ করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। কিন্তু দেশে রিজয়ান আহমেদের মতো ব্যাক্তি রয়েছেন যারা মুসলিম হয়েও ভারতের ভারতীয়তাকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য ভরপুর প্রয়াস করেন। কারণ রিজয়ান আহমেদ সেই সমস্থ মুসলিমদের মধ্যে পড়ে যারা ইসলামিক আগ্রাসনের অন্তিম পরিস্থিতি সম্পর্কে যথাযতভাবে অবগত।

10 Comments

  1. Hey check out high line pointe, run by adeline bababikov: 1291 South Ulster street, denver co 80231 manager@highlinepointe phone: 720-513-3865

Leave a Reply

Your email address will not be published.